রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৪:০৬ অপরাহ্ন

ইতিহাস বিকৃতকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে: বাবুল রানা

  • আপডেট সময় বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১
  • ১৭
ইতিহাস বিকৃতকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে: বাবুল রানা

খবর বিজ্ঞপ্তি

খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি অসাম্প্রদায়িক এবং সর্বকালে সর্বাধুনিক রাজনৈতিক দল। আওয়ামী লীগ কোন বদ্ধজলাশয় নয়; এটি একটি বহতা নদীর মত। এখানে অনেকে এসেছেন আবার তারা স্বার্থের টানে চলেও গিয়েছেন। কিন্তু বঙ্গবন্ধু’আদর্শকে যারা প্রকৃত অর্থেই ধারণ করেছেন তারা আজো যেমন দলের সাথে আছেন আগামীতেও থাকবেন ইনশাল্লাহ। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে গণতন্ত্রকে হত্যা করা হয়েছিলো। তাঁর সুযোগ্য কন্যা দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে দেশে ফিরে মৃত গণতন্ত্রকে পুনজ্জীবিত করতে বাংলার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে বেড়িয়েছেন এবং তিনি পিতার মত দলকে সুসংগঠিত করে শক্তিশালী করেছেন। যে কারনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ আজ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায়। শেখ হাসিনার এই কষ্টার্জিত গণতন্ত্র উন্নয়নকে যেকোন ত্যাগের বিনিময়ে সকলে মিলে স্থায়ী করতে হবে।

তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, যে সকল ত্যাগী নেতাকর্মীরা অভিমান করে আছেন তাদেরকে আবারো রাজনীতিতে ফিরিয়ে আনতে হবে। তারাই হচ্ছে বঙ্গবন্ধু’আদর্শের প্রকৃত সৈনিক। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনা স্বৈরাচার, ভোট চোর এবং পাকি ষড়যন্ত্রকারীকে প্রতিহত করতে অনেক অত্যাচার নির্যাতন, জেলজুলুম সহ্য করেছেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এবং ইতিহাস শেখ হাসিনাকে নিয়ে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র চলছে। ওই ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতায় শেখ হাসিনাকে ’৭১ এর পরাজিত শত্রু আর ’৭৫ এর খুনীরা হাসিনাকে ১৯ বার হত্যার চেষ্টা করেছে। আল্লাহ পাকে অশেষ কৃপায় তিনি বেঁচে গিয়ে রাষ্ট্রের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, সংবিধান এবং গণতন্ত্রকে রক্ষা করে একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই সফলতাকে আমাদের ধরে রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ইতিহাস বিকৃতকারীদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে সংগ্রাম চালিয়ে যেতে হবে। আর এই সংগ্রামে সামিল হতে হলে বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত আদর্শ ধারণ করতে হবে। তাহলেই বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাঙালি কাঙ্খিত অর্থনৈতিক মুক্তি লাভ করা সম্ভব হবে। আর শান্তি পাবে জাতির পিতার বিদেহী আত্মা।

গতকাল বুধবার বিকাল ৫টায় দলীয় কার্যালয়ে মহানগর আওয়ামী লীগ খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য মহানগর আওয়ামী লীগ নির্বাহী সদস্য এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার। খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগের আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম বাশার। সকল অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. আইয়ুব আলী শেখ, অধ্যা. আলমগীর কবীর, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, মো. মফিদুল ইসলাম টুটুল, এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, অধ্যা. রুনু ইকবাল, বীরমুক্তিযোদ্ধা মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ, এস এম আকিল উদ্দিন, রনজিত কুমার ঘোষ, সফিকুর রহমান পলাশ, এস এম আসাদুজ্জামান রাসেল। সভা পরিচালনা করেন, মহানগর আওয়ামী লীগ দপ্তর সম্পাদক মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ। এসময়ে উপস্থিত ছিলেন, বেগ লিয়াকত আলী, মুক্তিযোদ্ধা শ্যামল সিংহ রায়, শেখ মো. আনোয়ার হোসেন, এ্যাড. অলোকা নন্দা দাস, হাফেজ মো. শামীম, শেখ নুর মোহাম্মদ, মো. আরব আলী, এ্যাড. কে এম শাহজাহান কচি, মোঃ মোতালেব মিয়া, মীর বরকত আলী, এস এম গিয়াসউদ্দিন, আব্দুল মজিদ বকুল, সমীর কুমার সরকার, ডা. এস এম সায়েম, কাউন্সিলর ডালিম, কাউন্সিলর মনিরুজ্জামান মনি, মক্কি মিজানুর রহমান, রিপন খান, রাজু আহমেদ, মুন্সি আইয়ুব আলী, আব্দুল হাই পলাশ, শেখ আবিদ উল্লাহ, বাদল সরদার বাবুল, চ. মুজিবর রহমান, শেখ জাহিদ হোসেন, এমরানুল হক বাবু, আতাউর রহমান শিকদার রাজু, সরদার আব্দুল হালিম, হাসান ইফতেখার চালু, মো. জাকির হোসেন, এ্যাড. শামীম মোশাররফ, নূরীনা রহমান বিউটি, নুরজাহান রুমি, সাবিহা ইসলাম আঙ্গুরা, হাবিবুর রহমান দুলাল, শরীফ এনামুল হক, আমির হোসেন, কামরুজ্জামান, আব্দুর রশিদ, জাহাঙ্গীর আলম, তাজুল ইসলাম, আবু হেনা মোস্তফা ফিরোজ, নুর হোসেন, ডারউইন, শিপন, অভিজিৎ চক্রবর্তী দেবু, আইরিন চৌধুরী, নাসরিন সুলতান, নজরুল ইসলাম খোকন, উজ্জল রায়, জব্বার আলী হীরা, জহির আব্বাস, মাহামুদুর রহমান রাজেস, ওমর কামালসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। অপরদিকে রাত ৯টায় খালিশপুরে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কাজী ফয়েজ মাহমুদের উদ্যোগে কেককাটা হয়।

আলোচনা সভা শেষে বঙ্গবন্ধু সহ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন নেতৃবৃন্দের রুহের মাগফেরাত এবং মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেকের সুস্থতা কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে সকাল ৭টায় দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করা হয়।


Post Views:
11



Source by [author_name]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102