বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
সারা খুলনা অঞ্চলের সব খবরা খবর মোংলায় ওমিক্রণ ভ্যারিয়েন্টের বিস্তাররােধে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য মাইকিং শুরু বাগেরহাটে করোনার ভয়াবহতা রোধে জনসচেতনতার কার্যক্রম শুরু টিআই’র দুর্নীতি প্রতিবেদন পক্ষপাতদুষ্ট : ড. হাছান মাহমুদ প্রতারণার অভিযোগে মামলার মুখে গুগল প্রতিবন্ধী ব্যক্তি সমাজের বোঝা নয়- ইউএনও কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তীতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীকে পুতিনের শুভেচ্ছা বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২২ নেইমারের বিপক্ষে খেলা বিশেষ কিছুঃ রোদ্রিগো – স্পোর্টস প্রতিদিন ইকুয়েডরের বিপক্ষে একাদশে থাকবে ভিনিসিয়াস কৌতিনহো – স্পোর্টস প্রতিদিন

লাইভে সংবাদ পড়ার সময় বেতন না পাওয়ার কথা জানালেন সাংবাদিক

  • আপডেট সময় শনিবার, ২৬ জুন, ২০২১
  • ২৮
লাইভে সংবাদ পড়ার সময় বেতন না পাওয়ার কথা জানালেন সাংবাদিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : টেলিভিশনে সরাসরি সংবাদ প্রচারের সময় এক সংবাদ পাঠকের কাণ্ড হইচই ফেলে দিয়েছে চারদিকে। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে এ নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। কী এমন কাণ্ড ঘটালেন ওই সংবাদ পাঠক যা নিয়ে মেতেছেন সবাই। তা নিয়েই একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মেট্রো। খবরে বলা হয়, শীর্ষ সংবাদগুলো পড়ার সময় ওই সংবাদ পাঠক বলেন, টেলিভিশন স্টেশনটি তাদের বেতন দিচ্ছে না।

এর পর যা হওয়ার তাই হলো। ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়ে গেছে এ ভিডিও। ঘটনা ঘটিয়েছেন কবিন্দ কালিমিনা নামে এক সংবাদ পাঠক। শনিবার সন্ধ্যায় জাম্বিয়ার টেলিভিশন স্টেশন কেবিএন টিভি নিউজে তিনি খবর পড়ছিলেন।

খবর পড়ার মাঝে বলতে শুরু করেন— ভদ্র মহিলা ও পুরুষগণ আমি খবরের জন্য কাজ করি। আমরাও মানব সন্তান। আমাদেরও বেতন পাওয়া উচিত। এর পরই তিনি নিজের কথা ও কেবিএন টিভিতে কর্মরত অন্য সহকর্মীর কথা উল্লেখ করে বলেন, আমাদের বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এ মন্তব্য করার পর তার সরাসরি সম্প্রচার লাইন স্টুডিও থেকে কেটে দেওয়া হয়।

কেবিএন টিভির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেনেডি কে মামবে ওই সংবাদ পাঠককে ‘মদ্যপ’ হিসেবে অভিহিত করে বিবৃতিতে বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তার একটি ভিডিও ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে। এতে তিনি যে মদ্যপ আচরণ দেখিয়েছেন তাতে কেবিএন টিভি এবং আমরা হতাশ হয়েছি। তবে ফেসবুকে কালিমিনাও তার অবস্থানের পক্ষে কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, আমি এটা করেছি সরাসরি সম্প্রচারের সময়। সাংবাদিকদের কথা বলা উচিত নয় বলে, অনেক সাংবাদিক ভয়ে কথা বলতে পারেন না। তাই আমি কথা বলেছি।



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102