রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন

করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার কমাতে পাঁচদফা সুপারিশ খুলনা বিএনপির

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৭ জুন, ২০২১
  • ২৬
করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার কমাতে পাঁচদফা সুপারিশ খুলনা বিএনপির

করোনা ভাইরাস রোধে দ্রুত পর্যাপ্ত টিকা সরকারী খরচে প্রদানের ব্যবস্থা, প্রতিটি মহানগর / জেলা / উপজেলায় সরকারী খরচে অধিকহারে করোনা টেষ্টের ব্যবস্থা এবং অসুস্থ, বৃদ্ধ ও চলাচল অনুপযোগীদের জন্য বাড়িতে যেয়ে নমুনা সংগ্রহের বিশেষ টিম গঠন করাসহ করোনাভাইরাসে মৃত্যুর হার বৃদ্ধিতে এবং উদ্বেগজনক পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের করণীয় সম্পর্কে পাঁচদফা সুপারিশ করে খুলনা সিভিল সার্জনের মাধ্যমে সরকারের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করেছে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির। রবিবার (২৭ জুন) বেলা পৌনে ১টায় এ স্মারকলিপি প্রদান করেন।

স্মারকলিপির অন্যান্য সুপারিশগুলো হলো, প্রতিটি মহানগর ও জেলা শহরে একাধিক করোনা হাসপাতাল স্থাপন, শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধি এবং সরকারী খরচে চিকিৎসার ব্যবস্থা ও অন্যান্য রোগের চিকিৎসা এবং পরীক্ষা নিরীক্ষার ব্যবস্থা চলমান রাখা, করোনা চিকিৎসায় মৃত্যুর হার কমাতে আইসিইউ ও অক্সিজেন সিলিন্ডার সাপোর্ট অত্যন্ত জরুরী প্রয়োজন বিধায় প্রতিটি মহানগর / জেলা / উপজেলায় পর্যাপ্ত আইসিইউ শয্যা হাইফ্লোনজেল ও অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করা এবং প্রতিটি মহানগর / জেলা / উপজেলায় হাসপাতালগুলোতে করোনা চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ, লোকবল যেমন ডাক্তার ও নার্স নিয়োগ এবং পরীক্ষা নিরীক্ষার সরঞ্জাম স্থাপন।

কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জুর নেতৃত্বে প্রদান করা স্মারকলিপিতে আরো উল্লেখ করেন, বিএনপি আশা করে দলমতের উর্ধ্বে থেকে সরকার জাতীয় দূর্যোগ মোকাবেলায় সুপারিশসমূহ গ্রহণ এবং বাস্তবায়নে আন্তরিকতার সাথে কাজ করবেন। বিএনপির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে দেশব্যাপী করোনাকালিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে প্রদান করা স্মারকলিপিতে আরো উল্লেখ করেন, জননিরাপত্তা নিশ্চিত করাই এখন সরকারের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। মানুষের জীবন ও জীবিকা রক্ষায় দ্রুত স্বাস্থ্য সুরক্ষার ব্যবস্থা করা করোনা যুগে একমাত্র গুরুত্বপূর্ণ কাজ।

স্মারকলিপিতে আরও বলা হয়, গত ১৫ মাসে নভেল করোনা ভাইরাসে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বে এ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ কোটি ৩৪ লক্ষ এবং মৃত্যুর সংখ্যা ৩৯ লক্ষ ২৫ হাজার, বাংলাদেশে আক্রান্ত প্রায় ৯ লক্ষ মৃত্যুর সংখ্যা ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে যা উদ্বেগজনক অবস্থায় পৌছেছে। করোনা ভাইরাসে দ্বিতীয় ঢেউয়ের শেষ ভাগ কিংবা তৃতীয় ঢেউয়ের শুরুতে ডেল্টা ভেরিয়েন্টে দ্রুত সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার সীমান্ত অঞ্চলে বৃদ্ধি পাওয়ায় খুলনা ও রাজশাহী বিভাগ বিপদ জনক ঝুঁকির মধ্যে থাকায় হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেমে থেমে বৃদ্ধি পাওয়ায় মানুষের জীবন জীবিকা সংকটাপন্ন। সব কিছু স্থবির হয়ে পড়েছে। পুরো দেড় বছর নানা সংকটে ব্যবসা বাণিজ্য, শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ, বেকারের সংখ্যা আশংঙ্কাজনক বৃদ্ধি চলছে থেমে থেমে লকডাউন তারপরেও কমছে না সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার। বাংলাদেশের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুর হার কমাতে প্রয়োজন কঠোর স্বাস্থ্যবিধি পালনের ব্যবস্থা, সিংহভাগ মানুষের জন্য টিকা প্রয়োগের ব্যবস্থা ও চিকিৎসা সেবার সকল পর্যায়ের উন্নয়ন।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি এড. শফিকুল আলম মনা, মহানগর সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মনিরুজ্জামান মনি, সেকেন্দার জাফরুল্লাহ খান সাচ্চু, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, আবু হোসেন বাবু প্রমূখ।

খুলনা গেজেট/ টি আই



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102