শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
সিগারেট-মোবাইল-গাড়িসহ ৩৮ পণ্য আমদানি নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান গ্লোবাল অ্যাকসেসিবিলিটি অ্যাওয়ারনেস ডে উদযাপিত এবং সম্মাননা প্রদান – টেক শহর মোরেলগঞ্জ ফেরিঘাটে ৫০০পিচ ইয়াবাসহ এক নারী আটক ঝড়ে নৌকাডুুবি, নিজের জীবন দিয়ে ছেলেকে বাঁচালেন বাবা! অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে গিয়ে বিপাকে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ শরণখোলায় শ্রমিক দলের কমিটি বিলুপ্ত! শরণখোলায় জলাবদ্ধতা নিরসন, নদী ও বেড়িবাঁধ ভাঙনরোধে আগাম পরিকল্পনা গ্রহন! সাঁতার শেখা শুরু করেছেন খালেদা জিয়া ও ড. মুহাম্মদ ইউনূস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নামে ছাত্রলীগ সহসভাপতির চাঁদাবাজি! পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক নিয়োগ ২০২২-ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্য ব্যাংকে ১২৬ পদে চাকরি ⋆ KFPlanet

ভরা মৌসুমেও খুলনার কাঁঠাল হাটে মন্দাভাব কাটেনি

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৯ জুন, ২০২১
ভরা মৌসুমেও খুলনার কাঁঠাল হাটে মন্দাভাব কাটেনি

নিজস্ব প্রতিবেদক



জ্যৈষ্ঠ থেকে শ্রাবণ পর্যন্ত কাঁঠালের ভরা মৌসুম। মৌসুমের শুরুতে খুলনার পাওয়ার হাউজ মোড়স্থ কাঁঠালের হাটে মন্দাভাব ছিল। গত দেড় মাসে মন্দাভাব কাটেনি। ভিন্ন পেশার লোক এ ব্যবসায়ে এসে বিক্রেতার সংখ্যা বাড়িয়েছে মাত্র। রূপদিয়া মোকাম থেকে কাঁঠাল আসার পরিমাণ বাড়লেও বিক্রি বাড়েনি। লকডাউনের কারণে রূপদিয়া থেকে নগর পর্যন্ত পণ্যের পরিবহন খরচ বেড়েছে, ক্রেতা বাড়েনি।

হাটে ছোট বড় সব ধরণের কাঁঠাল এসেছে। টানা আটমাস অনাবৃষ্টির কারণে পরিপক্ক হয়নি। ফলে চাষীরা দাম পাচ্ছে না। মধ্যসত্বভোগী ফড়িয়ারা অল্পদামে কিনে রূপদিয়া বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ীদের কাছে বেশী দামে বিক্রি করছে। বড় অংকের লাভ পাচ্ছে ফড়িয়ারা।

ব্যবসায়ী মনিরুজ্জামান মামুন শঙ্খ সিনেমা হলে চাকুরী করতেন। হল বন্ধ হওয়ার পর প্রথমে চা, এরপরে কাঁঠালের ব্যবসা শুরু করেন। পাওয়ার হাউজ মোড়ে কাঁঠালের হাটের খবর পত্রিকায় দেখে তিনি এ বছর ব্যবসায় নামেন।
আজ বসুন্দিয়া থেকে ৩৮ পিচ কাঁঠাল এনে পুনরায় ব্যবসা শুরু করেন। লকডাউনের কারণে ক্রেতারা হাটে আসতে পারছেনা। মজুদকৃত কাঁঠাল থেকে সাতটি বিক্রি করেছেন।

ব্যবসায়ী মোঃ জামাল হোসেনের ভাষ্য, হাটে ক্রেতা কম। লকডাউনে কাঙ্খিত আয় না থাকার কারণে নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের কাছে টাকা নেই। চারদিন ধরে এ হাটে একাধিক মানুষের উপস্থিতি পুলিশ বাঁধা সৃষ্টি করে। আজ বিক্রির সুযোগ দিয়েছে। সকালে তিনি একশ’ ৪০ পিচ কাঁঠাল বসুন্দিয়া থেকে এনেছেন। ২৫ পিচ কাঁঠাল বিক্রি করেছেন। গেল বছরের তুলনায় এ বার পরিবহন খরচ বেড়েছে। সে কারণে রসালো এ ফলের দাম বাড়তি।

ব্যবসায়ী মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, ১২ বছর যাবৎ এ ব্যবসার সাথে জড়িত। কাঁঠালের এ রকম মন্দাবাজার তিনি এর আগে কখনো দেখেননি। তবে গত বছরের তুলনায় এবার বিকিকিনি একেবারে কম। তার কাছে সর্বোচ্চ ২শ’ পঞ্চাশ থেকে সর্বনিম্ন ৫০ টাকার কাঁঠাল রয়েছে।

ক্রেতা পরান বিশ্বাস জানান, কাঁঠাল সিজনাল ফল। বাড়ির সকলে পছন্দ করে। যদিও এবছর এর মান ভাল না। পরিবারের চাপে পড়ে ক্রয় করতে হয়েছে তাকে। তবে গেল বারের তুলনায় এবারের কাঁঠালে দাম ব্যবসায়ীরা একটু বেশী রেখেছে বলে তার অভিযোগ।

 

খুলনা গেজেট/এমএইচবি



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102