মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:১৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মেসি লেভানদস্কির ব্যবধান ছিল মাত্র ৪ পয়েন্ট – স্পোর্টস প্রতিদিন খুলনা অঞ্চলে ১৭৭ জনের করোনা শনাক্ত কোনো রাষ্ট্রই বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের ক্ষমতা রাখে না : পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আফ্রিকার খাদ্য সংকট দূর করতে শান্তি মিশনে যাচ্ছে ছাত্রলীগ  কোস্ট গার্ডের অভিযানে ৬২ বোতল বিদেশী বিয়ার ক্যান ও মদ জব্দ পুলিশকে তথ্য দেওয়ায় রগ কেটে হত্যা, মূলহোতাসহ গ্রেফতার ৫ ফিটনেস অ্যাপ কী ব্যক্তিগত প্রশিক্ষকের চেয়েও কার্যকর? রিয়ালকে হারানোর মত দলই আছে কয়েকটি – স্পোর্টস প্রতিদিন অবিশ্বাস্য হলেও সত্য! জমি থেকে বাঁধাকপি তোলার চাকরি, বেতন বছরে ৬২ লাখ টাকা ওমরাহ হজ পালনে সৌদি আরবের নতুন নির্দেশনা জারি

ভুল ধরে ২৫ লাখ টাকা পুরস্কার

  • আপডেট সময় বুধবার, ৩০ জুন, ২০২১
  • ৩৭
ভুল ধরে ২৫ লাখ টাকা পুরস্কার

ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া না হলেও ‘কোডিং’র প্রতি ভালোবাসা বিন্দুমাত্র কমেনি ২০ বছরের অদিতির। তাই নিজে নিজে কোডিং শিখে শুরু করেন এথিকাল হ্যাকিংয়ের কাজ। তার জেরেই এখন মাইক্রোসফটের কাছ থেকে বড় অঙ্কের উপহার পাচ্ছেন তিনি।

মাইক্রোসফটের অ্যাজার ক্লাউড সেবার ক্লাউড রিমোট কোড একজিকিউশন (আরসিই) বাগ খুঁজে পান অদিতি সিং। এর বিষয়ে বিশদে প্রকাশ করা হয়নি। তবে এটির ফলে যে নিরাপত্তা বিঘ্নিত হচ্ছে, সে বিষয়ে মাইক্রোসফটকে অবহিত করেছেন তিনি।

সম্পর্কিত খবর
এর আগে মাইক্রোসফটের পক্ষ থেকে অ্যাজার ক্লাউড প্লাটফর্মের এ জাতীয় বাগ খুঁজে পেলে আর্থিক পুরস্কারের ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। সেই অনুযায়ী ভুল ধরিয়ে দিয়ে ৩০ হাজার ডলার পাচ্ছেন অদিতি। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২৫ লাখ টাকার বেশি।

ভারতীয় তরুণী অদিতি সিং বলছেন, ক্লাস টেনের পর জয়েন্টের প্রস্তুতি নিতে রাজস্থানের কোটা যান। সেখানে থেকে কোচিংয়ে ভর্তি হয়ে মেডিকেল ও ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের প্রবেশিকার প্রস্তুতি শুরু করেন। তবে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারেননি।

অদিতি জানান, তাতে পেরে উঠবেন না, আগেই বুঝতে পেরেছিলেন। শখের বশে কোডিং শুরু করেন। ধীরে ধীরে প্রস্তুতি বন্ধ হয়। পুরোপুরি ডুবে যান কোডিংয়ের জগতে। বিভিন্ন ওয়েবসাইট, ইউটিউব ও বই দেখে নিজেই কোডিং শিখতে থাকেন।

ক্লাস টুয়েলভের পর বিসিএ-তে ভর্তি হন। সেখানে পড়ার সময় ‌‌‘ম্যাপমাইইন্ডিয়া’র সিকিউরিটি গলদ খুঁজে পান অদিতি। সেটা সংস্থাকে জানান তিনি। এরপর সেই সংস্থা থেকে অদিতিকে সাইবার সিকিউরিটি অ্যানালিস্ট হিসেবে চাকরি দেওয়া হয়।

হিন্দুস্তান টাইমসের এক অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী অদিতি সিং আরও জানান, কোডিং শেখার জন্য আগ্রহই যথেষ্ট। ইঞ্জিনিয়ারিং পড়তেই হবে এমন কোনও কথা নেই। সুযোগ না পেলে একটা সার্টিফিকেট কোর্স করে নেওয়া যেতে পারে।



Source by [author_name]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102