বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৩৯ অপরাহ্ন

খুলনায় ১৫জনসহ বিভাগে রেকর্ড ৪৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬০ হাজার ছাড়াল

  • আপডেট সময় রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১
  • ১২
খুলনায় ১৫জনসহ বিভাগে রেকর্ড ৪৬ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৬০ হাজার ছাড়াল

০ শাহ আনভীর আহমেদ

খুলনা বিভাগে ২৪ ঘন্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সর্বোচ্চ ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে নতুন করে ১ হাজার ৩০৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের সংখ্যা ৬০ হাজার ছাড়িয়েছে। এরআগে বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) খুলনা বিভাগে সর্বোচ্চ ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছিল। রোববার (০৪ জুলাই) বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দফতর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে খুলনায় ১৫ জন, কুষ্টিয়ায় ১৫ জন, যশোরে সাতজন, ঝিনাইদহ, মাগুরা ও চুয়াডাঙ্গায় দুজন করে এবং বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও মেহেরপুরে একজন করে মারা গেছেন। খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় চুয়াডাঙ্গায় গত বছরের ১৯ মার্চ। করোনা সংক্রমণের শুরু থেকে রোববার সকাল পর্যন্ত বিভাগের ১০ জেলায় মোট শনাক্ত হয়েছে ৬০ হাজার ৫৬৪ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ২১৪ জন। এ সময় সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪০ হাজার ২১৮ জন।

খুলনার তিন হাসপাতালে আরও ১৫ জনের মৃত্যু:খুলনার তিন হাসপাতালে আরও ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে রোববার (০৪ জুলাই) সকাল টা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। এরমধ্যে করোনায় ১৪ জন উপসর্গে একজনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে সাতজন, জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে দুজন বেসরকারি গাজী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এদিকে খুলনা আবু নাসের হাসপাতালের নতুন করোনা ইউনিটে প্রথমদিনে ২৪ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, খুলনা করোনা ডেডিকেট হাসপাতালে গত ২৪ ঘন্টায় সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন- খুলনা মহানগরীর দৌলতপুরের বেগম (৫০), খানজাহান আলী রোডের শেখ ওহিদুজ্জামান (৬৮), দোলখোলা এলাকার আনোয়ারা (৬২), সদরের সরদার হায়বাদ আলী (৫৫), বাগেরহাটের ফুনিয়াবাই এলাকার জাহাঙ্গীর (৫২) এবং বাগেরহাটের ডাকবাংলো এলাকার ইলিয়াস ফকির (৬০) এছাড়া একজন উপসর্গে মারা গেছেন। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৯৭ জন। যার মধ্যে রেড জোনে ১০২ জন, ইয়ালো জোনে ৫৫জন, আইসিইউতে ২০ জন এইচডিসিতে ২০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছেন ৪০ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ী ফিরেছেন ৫৫ জন। বেসরকারি গাজী মেডিকেল হাসপাতালের স্বত্তাধিকারী ডাঃ গাজী মিজানুর রহমান জানান, ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন, নগরীর বানিয়াখামার এলাকার আফতাব হোসেন (৭৬), ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগরের জাকির হোসেন (৫০), গোলনা এলাকার সালেহা বেগম (৬৭),  বাগেরহাট চিতলমারী উপজেলার হিজলা এলাকার কাজী আহাদ (২৬), নড়াইল সদরের দর্জিপুরের হালিমা (৫৫) সদরের গোবরা এলাকার মিঠু বিশ্বাস (৮১)হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো ১১৫ জন। এরমধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন জন ও  এইচডিইউতে আছেন ১০ জন। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৩ জন এবং সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২২ জন। পিসিআর ল্যাবে ৩৭টি নমুনা পরীক্ষায় ২৮ জনের করোনা পজেটিভ এসেছে। খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডাঃ কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন, নগরীর টুটপাড়া এলাকার জহুরুল হক (৬৫) ডুমুরিয়ার জাহানারা বেগম (৬০)এছাড়া চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৫ জন, তার মধ্যে ৩৩জন পুরুষ ৩২ জন মহিলা। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৫ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৮ জন।

খুলনার আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, হাসপাতালে করোনা শনাক্ত হওয়া ২৪ জন রোগী ভর্তি রয়েছে। যারমধ্যে পুরুষ ১১ জন নারী ৭জন রয়েছে। প্রথমদিনে কোন রোগীর মৃত্যু হয়নি।


Post Views:
21



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102