শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৫৯ পূর্বাহ্ন

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম – Priyocareer

  • Update Time : রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১

আপনি কি বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম জানতে চান? প্রযুক্তি আমাদের দৈনন্দিন জীবন ব্যবস্থা পাল্টে দিয়েছে। আমাদের কাজকে গতিশীল করে তুলেছে।

আপনি ঘরে বসে বিশ্বের যেকোনো দেশে মুহূর্তের মধ্যে টাকা আদান প্রদান করতে পারবেন। মোবাইলে লেনদেনের ক্ষেত্রে অন্যতম একটি জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং এপ্লিকেশন হল বিকাশ।

বিকাশের আপনি মুহূর্তের মধ্যে বিশ্বের এক প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে বিনা বাধায় টাকা আদান-প্রদান করা যায় একদম মুহূর্তে। বিকাশে টাকা আদান-প্রদান করা থেকে শুরু থেকে ইন্টারনেট বিল, কেনাকাটা, ব্যাংক লোন থেকে শুরু করে সকল প্রকার অর্থ লেনদেন করা যায় একদম মুহূর্তের মধ্যে।

একসময় বিকাশ শুধুমাত্র টাকা লেনদেনকারী এপ্লিকেশন হিসেবে ব্যবহৃত হত। কিন্তু, সময়ের সাথে বিকাশের পরিধি বেড়েছে। বিকাশ এখন ব্যবসায়ের অন্যতম ক্ষেত্র হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে। ব্যবসা বাণিজ্যে তাই মার্চেন্ট একাউন্টের ব্যবহার ব্যবসাকে সহজ করে তুলেছে।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট কি?

প্রযুক্তির আশীর্বাদে এখন আমাদের চারপাশে পরিবর্তনের ছোঁয়া লেগেছে। সবকিছুতে প্রযুক্তির ব্যবহার আমাদের দৈনন্দিন জীবনকে সহজ, সরল ও গতিশীল করে তুলেছে। আমাদের জীবনের তাই ছোট বড় প্রতিটি কাজে প্রযুক্তি জড়িয়ে আছে নিঃস্বার্থভাবে। প্রযুক্তির কল্যাণে আজকাল আমরা ঘরে বসেই সমস্ত কাজ-কর্ম করতে পারছি।

ঘরে বসে ক্লাস করা, পড়াশোনা করা, খাবার অর্ডার দেওয়া, টিকেট কেনা, মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে টাকা আদান- প্রদান করা থেকে সমস্ত কাজকর্ম সম্পন্ন হচ্ছে শুধুমাত্র প্রযুক্তির মাধ্যমে। তাই আজকাল প্রযুক্তির হয়ে গেছে আমাদের পরম বন্ধু।

প্রযুক্তির অন্যতম একটি আশীর্বাদ হল মোবাইলে লেনদেন। নগদ, বিকাশ, রকেট বর্তমানে জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস। তবে, এদের মধ্যে আবার এজেন্ট, মার্চেন্ট, উদ্যেক্তা নামে অ্যাকাউন্টের কিছু পার্থক্য আছে।

কিন্তু আমরা অনেকেই জানিনা, বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট মানে কি? ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে বিকাশ বন্ধরূপে আবির্ভূত হয়েছে। ব্যবসা বাণিজ্যে পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে, বিক্রেতাকে যে একাউন্টের মাধ্যমে লেনদেন করা হয় তাকে মার্চেন্ট একাউন্ট বলা হয়। মার্চেন্ট একাউন্ট বিকাশে এক অন্যতম জনপ্রিয় একটি উদ্যোগ। এর ফলে ব্যবসা বাণিজ্যে লেনদেন হয়ে গেছে সহজ। 

ক্রেতারা পণ্য কিনে, মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা বিকাশের payment অপশনে গিয়ে, বিক্রেতাকে অর্থ প্রদান করা হয়, তাকে মার্চেন্ট একাউন্ট বলে। মার্চেন্ট একাউন্টে টাকা প্রদান করে কিনতে পারবেন তাদের কাঙ্ক্ষিত পণ্য। আপনার ব্যক্তিগত একাউন্ট থেকে মার্চেন্ট একাউন্টের সুযোগ সুবিধা তুলনামূলক বেশি বিধায়, ব্যবসায়ীদের অন্যতম পছন্দ হল মার্চেন্ট একাউন্ট। 

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

আমাদের মধ্যে যারা নতুন ব্যবসা করার কথা ভাবছেন, কিন্তু মার্চেন্ট একাউন্ট সম্পর্কে ধারণা নেই, তাদের জন্যই আজকের পোস্টটি। আমাদের মধ্যে অনেকেই জানেন না কিভাবে মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে হয়৷! চলুন তাহলে জেনে আসি মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়মাবলী।

মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে হলে অবশ্যই আপনার নিজের বিকাশ একাউন্ট থাকতে হয়ে। প্রথমে আপনার মোবাইলের যেকোনো ব্রাউজার থেকে www.bkash.com/bn/i-want-register/send-registration-request সাইটে ভিজিট করতে হবে। একাউন্ট খোলা না থাকলে একাউন্ট খুলে নিবেন।

একাউন্ট খোলা হলে আপনি ২ টি অপশন পাবেন। যথা:

  • এজেন্ট
  • মার্চেন্ট

২ টি অপশন থেকে মার্চেন্ট একাউন্টে ক্লিক করতে হবে। ক্লিক করার পর একটা ফর্ম আসবে, ফরমটি সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলা
বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার ফরম

ফরমের দেওয়া তথ্যে আলোকে বিকাশ আপনার একাউন্ট খোলার বিষয়টি পর্যালোচনা করে দেখবেন। একটি মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে হলে আপনার অনেক তথ্যের দরকার হয়।

চলুন তাহলে জেনে আসি কি কি তথ্য প্রযোজ্য হয়, একটি মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে।

  • একটি একটিভ মোবাইল নম্বর। 
  • আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র। জাতীয় পরিচয়পত্র না থাকলে জন্ম নিবন্ধন/ ড্রাইভিং লাইসেন্স। 
  • আপনার দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি। 
  • ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্স। 
  • টিন নাম্বার। 
  • সচল ব্যাংক একাউন্ট। 
  • মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য অনুমতি পত্র।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট এর সুবিধা

মার্চেন্ট একাউন্ট ব্যবসা ক্ষেত্রে, লেনদেনকে অনেক সহজ করে তুলেছে। বর্তমানে সময়ের সাথে বিকাশ গ্রাহকের সংখ্যা বাড়ছে। সেই সাথে ব্যবসা বাণিজ্যের সংখ্যা বাড়ছে। বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের ক্ষেত্রে লেনদেন অনেক সহজ বিধায়, আজকাল সকলের পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছে এই মার্চেন্ট একাউন্ট। কিন্তু আপনি কি জানেন মার্চেন্ট একাউন্টের সুবিধা সমূহের কথা?

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট
বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট এর সুবিধা:

  • আপনি যদি কেনাকাটার ক্ষেত্রে মার্চেন্ট একাউন্টে পেমেন্ট করেন, সেখানে আপনাকে চার্জ তুলনামূলক প্রায় ১.৭% কম কাটা হয়। যেখানে ব্যক্তিগত একাউন্ট থেকে, কেনাকাটার ক্ষেত্রে চার্জ কাটা হয় ১.৮৫% টাকা। 
  • ব্যক্তিগত একাউন্টের ক্ষেত্রে কিছু নির্দিষ্ট সীমা থেকে। নির্দিষ্ট সীমার বাইরে টাকা জমা দেওয়া যায় না। কিংবা লেনদেন করা যায় না। কিন্তু মার্চেন্ট একাউন্টের ক্ষেত্রে কোন ধরণের লি-মিট থাকে না। আপনি যত পরিমাণ ইচ্ছে ঠিক তত পরিমাণ টাকা লেনদেন করতে পারবেন। 
  • আপনি কেনাকাটার ক্ষেত্রে বিকাশে মার্চেন্ট একাউন্ট পেমেন্ট করলে, আপনার থেকে কোন টাকা অতিরিক্ত কাটা হবে না। 
  • ব্যক্তিগত একাউন্টের তুলনায় মার্চেন্টের লেনদেন করা অনেক বেশি নিরাপদ। তাই ব্যবসায়ীদের প্রথম পছন্দ মার্চেন্ট একাউন্ট।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট এর অসুবিধা

প্রায় সব কিছুরই দুটি ভাগ থেকে। মার্চেন্ট একাউন্ট তার ব্যতিক্রম নয়। এতক্ষণ মার্চেন্ট একাউন্টের সুবিধা সমূহ সম্পর্কে জানলাম। চলুন জেনে নেই এর অসুবিধাসমূহ সম্পর্কে:

  • মার্চেন্ট একাউন্টের ক্ষেত্রে, গ্রাহকগণ শুধুমাত্র ব্যক্তিগত একাউন্ট থেকে পেমেন্ট করতে পারবে। কিন্তু যাদের বিকাশ একাউন্ট নেই, তারা কখনোই মার্চেন্ট পেমেন্ট করতে পারবেনা।
  • ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্টে আপনি মুহূর্তের মধ্যে যখন ইচ্ছা, ঠিক তখনই টাকা তুলতে পারবেন। কিন্তু মার্চেন্ট একাউন্টে টাকা তুলতে হলে আপনাকে ব্যাংকের শরণাপন্ন হতে হবে। কিন্তু ব্যাংক থেকে আপনি সাথে সাথে টাকা তুলতে পারবেন না। যখন টাকা আপনার ব্যাংক একাউন্টে জমা হবে, ঠিক পরের কার্যদিবসে আপনি সেই টাকা তুলতে পারবেন।

উপসংহার

সময়ের সাথে আজকাল মানুষ আধুনিক হয়েছে। ব্যক্তিগত কাজের বাইরে এসেছে প্রযুক্তিকে আপন করে নিয়েছে। মোবাইল লেনদেনের ক্ষেত্রে বিকাশ সেই ধারা অব্যাহত রেখেছে। কিন্তু একজন পরিপূর্ণ ব্যবসায়ী হিসেবে নিজের আত্মপ্রকাশ করতে চাইলে বিকাশের মার্চেট একাউন্টে লেনদেন করাটা জরুরি।

বর্তমান সরকারের নতুন প্রজ্ঞাপনের আলোকে একজন ব্যক্তি ব্যক্তিগত একাউন্ট থেকে একদিনে সর্বোচ্চ দুইবারের বেশি টাকা তুলতে পারবেন না। তাই ব্যবহারের ক্ষেত্রে মার্চেন্ট একাউন্ট সবচেয়ে সেরা।

আর কিছু লেখা



Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102