শনিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:১৭ অপরাহ্ন

লকডাউনে লোকসানের শঙ্কায় নরসিংদীর কাঁঠাল চাষিরা | Adhunik Krishi Khamar

  • আপডেট সময় রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১
  • ৩১
লকডাউনে লোকসানের শঙ্কায় নরসিংদীর কাঁঠাল চাষিরা | Adhunik Krishi Khamar




লকডাউনে লোকসানের শঙ্কায় নরসিংদীর কাঁঠাল চাষিরা। নরসিংদীর কাঁঠাল খেতে সুমিষ্ট ও সুস্বাদু হওয়ায় এর কদর রয়েছে দেশজুড়ে। তবে লকডাউনে লোকসান গুনতে হচ্ছে পাইকারী ও খুচরা ব্যবসায়ীদের। লকডাউনে ক্রেতা কম থাকায় ন্যায্য দাম না পেয়ে লোকসানের মুখে পড়েছে বাগান কেনা ব্যবসায়ীরা।

জানা যায়, নরসিংদীর কাঁঠাল স্থানীয়দের চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করা হয়ে থাকে। জেলার ৬টি উপজেলার সর্বত্রই কাঁঠাল কমবেশী উৎপাদন হলেও শিবপুর, বেলাব, পলাশ, মনোহরদী ও রায়পুরা উপজেলার লালমাটি অধ্যূষিত পাহাড়ী এলাকার চাষিরা বাণিজ্যিকভাবে কাঁঠালের আবাদ করে আসছেন।

কাঁঠাল ব্যবসায়ী হোসেন আলী বলেন, সিজনের শেষে ৩ লাখ টাকা হাত আসব কিনা সন্দেহ আছে। আমরা সারা বছর অপেক্ষায় থাকি এই সময়টার জন্য। আমরা ধার-দেনা করে বাগান ক্রয় করে বছর শেষে যদি লোকসান গুণতে হয়। তবে ভিটে –মাটি বিক্রি করে বৌ-পোলাপান নিয়ে রাস্তা গিয়ে দাঁড়ানো ছাড়া আর কোন উপায় থাকবেনা।

কাঁঠাল বিক্রিতা জয়নাল আবেদীন বলেন, লকডাউনে বাজারে পাইকার কম। আমি সকাল ৮টার দিকে ১০০টাকায় ভ্যান গাড়ী ভাড়া করে ২০টি কাঁঠাল নিয়ে এ বাজারে এসেছি, বেলা ১২টা পর্যন্ত মাত্র ৫টি কাঁঠাল বিক্রি করতে পেরেছি। বাকী কাঁঠাল বিক্রি করতে পারব কিনা তা নিয়ে সংশয়ে আছি।

নরসিংদী জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শোভন কুমার ধর জানান, অনুকূল আবহাওয়া ও কৃষকদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির কারণে এবার কাঁঠালের চাষ একটু বেশি হয়েছে। কিন্তু করোনা ও লকডাউনের কারণে বাজারে ক্রেতা সংখ্যা কম থাকায় কাঁঠালের দাম সাময়িক কিছুটা হ্রাস পেয়েছে।









Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102