রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
দ্বিগুন বেতন দাবী সালাহর, বিক্রি করতে চায় লিভারপুল – স্পোর্টস প্রতিদিন খুলনায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে কেএমপির বর্ণাঢ্য র‌্যালি পদ্মা সেতুর লাইভ অনুষ্ঠানে অস্ত্র নিয়ে মহড়া, সাংবাদিক গ্রেপ্তার বাইডেনকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ পানিতে তলিয়ে গেল রাস্তা, জাল ফেলতেই ধরা পড়ল প্রচুর মাছ অবশেষে যুগান্তকারী আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ বিলে বাইডেনের স্বাক্ষর ভিনিসিয়াস আমার ভাইয়ের মত: রোদ্রিগো – স্পোর্টস প্রতিদিন শরণখোলায় পদ্মা সেতুর উদ্ধোধন উপলক্ষ্যে নানা অয়োজনে উৎসব পালন শরণখোলায় ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল এসএসসি পরীক্ষার্থী হুট করে ফরিদপুরের পানিতে লবণাক্ততা বৃদ্ধি, কুমিল্লাবাসী বললো, ‘ফার্স্ট টাইম?’

লেবু ও মাল্টা চাষে মোসলেম উদ্দিনের অভাবনীয় সাফল্য | Adhunik Krishi Khamar

  • আপডেট সময় রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১
লেবু ও মাল্টা চাষে মোসলেম উদ্দিনের অভাবনীয় সাফল্য | Adhunik Krishi Khamar




লেবু ও মাল্টা চাষে মোসলেম উদ্দিনের অভাবনীয় সাফল্য এসেছে। একদিন দুপুরের খাওয়ার সময় বাড়ির আঙিনায় লাগানো গাছে প্রচুর লেবু ঝুলতে দেখে বাণিজ্যিকভাবে লেবু চাষের স্বপ্ন দেখেন তিনি। তার সেই লালিত স্বপ্নই আজ তার হাতের মুঠোয় ধরা দিয়েছে। গাছে গাছে ঝুলছে থোকা থোকা সিডলেস লেবু ও বারি-১ জাতের মাল্টা।

জানা যায়, মাত্র ৯ বছর আগেও অন্যের জমিতে দিন মজুরের কাজ করতেন মোসলেম উদ্দিন। সাত সদস্যের দরিদ্র পরিবারের খরচ মেটাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছিলেন তিনি। কোনোভাবেই যেন চলছিল না তার দিনকাল। অভাবের সংসারের ঘানি টানতে পথে পথে বাদাম বিক্রি ও ভাঙারি বিক্রির কাজও করেছেন। তাতেও ভাগ্যের চাকা ঘোরেনি মোসলেমের। তবে এখন তিনি উপজেলার একজন সফল লেবু ও মাল্টা চাষি। বাগানের লেবু, পেপে, মাল্টা এবং আগাম জাতের টক বরই বিক্রি করে আজ তিনি কোটি টাকার মালিক হয়েছেন।

মোসলেম উদ্দিন বলেন, ২০১৩ সালে প্রথম দিকে ওই জমির ওপর তার গাছের কলম এবং নরসিংদী ও টাঙ্গাইলের লাউহাটি থেকে আনা সিডলেস ও এলাচি জাতের ৫ হাজার ২০০ চারা লাগান। একই সঙ্গে সাথী ফসল হিসেবে ওই জমিতে ২ হাজার পেঁপের চারাও লাগানো হয়। এসময় ব্যাংক থেকে আরও ৭ লাখ টাকা ঋণ নেন। প্রথম ৬ মাসেই পেঁপে বিক্রি করে চার লাখ টাকা আয় হয়।

তিনি আরও বলেন, তার এই বাগান দেখতে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে লোকজন আসেন। তাদের লেবু ও মাল্টা চাষ করতে উৎসাহ দেন তিনি। বর্তমানে এ উপজেলায় ৮টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় প্রায় সাড়ে ৫০০ মাল্টা চাষি ৩৬০০ হেক্টর জায়গাজুড়ে মাল্টা বাগান গড়ে তুলেছেন। এছাড়া এ উপজেলার প্রতিটি বাড়ির আঙ্গিনায়ও ছোট ছোট আকারের অসংখ্য মাল্টা বাগান রয়েছে।

উপজেলার কৃষি অফিসার  নূরুল ইসলাম জানান, এ অঞ্চলের মাটি মাল্টা ও লেবু চাষের জন্য বেশ উপযোগী। মোসলেম উদ্দিনের বাগান দেখে অনেকেই মাল্টা ও লেবু চাষে উৎসাহী হচ্ছেন।









Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102