শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০২ অপরাহ্ন

শেরপুরের পাহাড়ি মাটিতে বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে লটকন | Adhunik Krishi Khamar

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১
  • ১৪
লটকন




শেরপুরের পাহাড়ি মাটিতে বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে লটকন। জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের ভারুয়া গ্রামে বাণিজ্যিকভাবে পাহাড়ি জমিতে ইউপি সদস্য হামিদুল্লাহর লটকন চাষে বাম্পার ফলন হয়েছে। লটকন অত্যন্ত পুষ্টিকর, সুস্বাদু ও মিনারেলস ভিটামিন সমৃদ্ধ একটি ফল। এই ফলের চাষ করে এলাকায় তাক লাগিয়ে দিয়েছেন হামিদুল্লাহ।

জানা যায়, হামিদুল্লাহ ২০০৮ সালে নরসিংদীর তার এক চাচার বাগান থেকে লটকনের ১০০ চারা সংগ্রহ করে বাড়ির পাশে নিজের পতিত জমিতে রোপণ করেন। রোপণের তিন বছর পর থেকে প্রতি গাছে চার কেজি থেকে ১৩০ কেজি পর্যন্ত ফল আসছে। গাছের বয়স ভাড়ার সঙ্গে ফলনও বাড়ছে। জৈব সার, ফল আসার পর সামান্য কীটনাশক, রাসায়নিক সার, শুস্ক মৌসুমে ২/১ বার সেচ আর ডালপালা ছেটে দেয়া ছাড়া বাড়তি আর কোনো ঝামেলা নেই।

হামিদুল্লাহ বলেন, লটকনের চাষ খুবই লাভজনক। এক একর জমিতে স্বল্প খরচে প্রতি বছর দেড় থেকে দুই লাখ টাকা আয় করা সম্ভব। কলম কাটা লটকন গাছ থেকে দুই-তিন বছরের মধ্যে ফল আসে। কিন্তু বীজ থেকে গজানো রোপিত চারা থেকে ফল আসতে ৭-৮ বছর সময় লাগে।

উপজেলার কৃষি অফিসার হুমায়ুন কবীর জানান, লটকন চাষের জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেয়া হচ্ছে কৃষকদের। লটকন দেশি এবং পুষ্টিকর ফল হওয়ায় কৃষি বিভাগ থেকে লটকন চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে।









Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102