রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫৫ অপরাহ্ন

বাজারে ওয়ালটনের নতুন মডেলের ফ্রিজ

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১
  • ৩৭
বাজারে ওয়ালটনের নতুন মডেলের ফ্রিজ

প্রকাশিত: ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ, ১৮ জুলাই ২০২১

ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে ফ্রিজের বিক্রি সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছিল, যা সাধারণত বাংলাদেশের ফ্রিজ বিক্রির প্রথম মৌসুম হিসাবে বিবেচিত হয়। গত কয়েক বছরের মতো, দেশটির সুপার ব্র্যান্ড ওয়ালটনের ফ্রিজ কোরবানি ইদের আগে আরও বেশি বিক্রি করছিল কারণ স্থানীয় ব্র্যান্ডের ৫০ টিরও বেশি নতুন ফ্রিজে আপডেট করা ডিজাইন এবং বৈশিষ্ট্যগুলি গ্রাহকদের নজরের কেন্দ্রস্থলে ছিল। আসন্ন ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে, বাসগ্লাদেশী সুপার ব্র্যান্ড ওয়ালটন ২২৭ টি নতুন মডেল পাশাপাশি ৫০ টিরও বেশি মডেলের রেফ্রিজারেটর বাজারে আপডেট করেছে।

ফ্রিজের নতুন এবং আপডেট হওয়া মডেলগুলি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে- আইওটি ভিত্তিক স্মার্ট রেফ্রিজারেটর, পাওয়ার সাশ্রয়কারী ডিজিটাল ইনভার্টার প্রযুক্তি এবং ব্যাকটেরিয়া-প্রতিরোধী সুপার কুলিং বৈশিষ্ট্যযুক্ত রেফ্রিজারেটরগুলি। ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের এই নতুন মডেলের ধারণক্ষমতা ১২৫ লিটার থেকে ৩৬৫ লিটারের মধ্যে। এই নিউজ মডেলগুলির সাহায্যে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের ২০০ টিরও বেশি মডেলের রেফ্রিজারেটর, ফ্রিজার এবং পানীয় কুলার এখন দেশীয় বাজারে উপলভ্য। দেশব্যাপী চলমান ‘ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ১১’ এর আওতায় ওয়ালটনের ফ্রিজ বিভাগের ‘মেগা উৎসব’ অফার ঘোষণা করেছে।

অফার অনুসারে, ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার পরে গ্রাহকরা ১০ লক্ষ টাকার নগদ পুরষ্কারের সাথে মিলিয়নেয়ার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইতোমধ্যে ওয়ালটন ফ্রিজ ক্রয়ের জন্য দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সাতজন গ্রাহককে ১০ লক্ষ টাকা নগদ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়াও, ‘ঈদে মেগা উৎসবে’ নিশ্চিত নগদ ছাড় অনুযায়ী ওয়ালটন ফ্রিজের প্রচুর গ্রাহক আকর্ষণীয় পরিমাণ ছাড় পেয়েছেন।

এদিকে, ওয়ালটন অনলাইনে অটোমেশনের আওতায় বিক্রয়োত্তর সেবা আনতে সারা দেশে ‘ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ১১’ চালাচ্ছে। কমপেইন ঈদুল আজহা উপলক্ষে ওয়ালটন ফ্রিজ এই প্রচারের এই মরসুমে ‘মেগা উৎসব’ পরিচালনা করছে। এর আওতায় ওয়ালটন ফ্রিজের যে কোনও মডেল কিনলে আপনি কোটিপতি বা নগদ ১০ লাখ টাকা পেতে পারেন। এখানে কোটি কোটি টাকার গ্যারান্টিযুক্ত নগদ ভাউচারও রয়েছে। এরই মধ্যে দেশের বিভিন্ন স্থানে ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনে সাতজন ক্রেতা কোটিপতি হয়েছেন। গ্যারান্টিযুক্ত ছাড়ের অধীনে অসংখ্য ক্রেতা আকর্ষণীয় ছাড় পেয়েছে।

এই সুবিধাগুলি ছাড়াও, ওয়ালটন ফ্রিজের ১ বছরের রিপ্লেসমেন্ট সহ কমপ্রেসরটিতে ১২ বছরের গ্যারান্টি রয়েছে। এছাড়াও গ্রাহকরা অনলাইনের মাধ্যমে নিকটস্থ ওয়ালটন প্লাজা বা পরিবেশকের কাছ থেকে রেফ্রিজারেটর বা ফ্রিজার কিনতে পারবেন। ওয়ালটনের কর্মীরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক জারি করা সঠিক স্বাস্থ্য সুরক্ষা নির্দেশিকা অনুসরণ করে গ্রাহকের বাড়িতে রেফ্রিজারেটর সরবরাহ করছে। অনলাইন অর্ডারগুলির জন্য, গ্রাহকরা নগদ অন বিতরণ এবং বিনামূল্যে হোম ডেলিভারি পরিষেবা উপভোগ করছেন। ওয়ালটন ই-প্লাজায় ক্রেতাদের যে কোনও মডেলের ফ্রিজ কেনার জন্য শূন্য সুদে ৫ শতাংশ ছাড় এবং ১২ মাসের ইএমআই দেওয়া হয়।

এগুলি বাদে ওয়ালটন ফ্রিজ এক্সচেঞ্জের অফার শুরু করেছিল। এক্সচেঞ্জ অফারের আওতায় গ্রাহকরা কোনও ব্র্যান্ডের পুরানো সক্রিয় এবং অ-সম্পাদনকারী ফ্রিজের বিনিময়ে আকর্ষণীয় ছাড়যুক্ত দামের ওয়ালটন ফ্রিজারগুলির যে কোনও মডেল কিনতে পারবেন। ওয়ালটনের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর আমদাদুল হক সেকার বলেছেন, ওয়ালটন ফ্রিজ এখন স্থানীয় বাজারে আধিপত্য বিস্তার করছে। কুরবানি ঈদে এগিয়ে ওয়ালটনের নতুন এবং আপডেট হওয়া বৈশিষ্ট্যযুক্ত ফ্রিজে আরও বেশি বিক্রি হচ্ছে।

ওয়ালটন ফ্রিজের চিফ অফ বিজনেস আনিসুর রহমান মল্লিক বলেছেন যে ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের নতুন মডেলগুলির মার্জিত দরজার নিদর্শন, স্ট্যাবিলাইজার ফ্রি অপারেশন, বড় ফ্রিজার ক্ষমতা, ফ্রিজারে এলইডি লাইট, ব্যবহারকারী বান্ধব অর্গোনমিক এবং মার্জিত দরজা নকশা, দীর্ঘতর স্থায়ী শীতল ব্যবস্থা রয়েছে , ইঁদুর প্রতিরোধক সংকোচকারী ব্যাক কভার, কম শব্দ স্তর, 5-স্টোর শক্তি রেটিং, অর্থনৈতিক মডেল, অ্যান্টি-ফাঙ্গাল ডোর গাসকেট, অতি-সতেজতা, সুপার কুলিং, গ্লাসের দরজার প্রোফাইল সহ নান্দনিক বর্ণন, ইন্টেলিজেন্ট কন্ট্রোল সিস্টেম (আইসিএস), বুদ্ধিমান বৈদ্যুতিন সংকেতের মেরু বদল প্রযুক্তি (আইআইটি), আইওটি, স্মার্ট ডায়াগনোসিস, আইজিটি আয়নাইজার, ইলেকট্রনিক্স নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি আইওটি ভিত্তিক স্মার্ট প্রযুক্তি ওয়ালটন ফ্রিজের সাথে যুক্ত করা হয়েছে।

ওয়ালটনের দুই শতাধিক মডেলের ফ্রস্ট, নন-ফ্রস্ট এবং ডিপ ফ্রিজার রয়েছে। এই ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরের দাম ১০ হাজার ৯৯০ থেকে ৬৯ হাজার ৯০০ টাকার মধ্যে। নগদ অর্থের পাশাপাশি গ্রাহকরা কিস্তি সুবিধায় ওয়ালটন ফ্রিজও কিনতে পারবেন। আন্তর্জাতিক মানের টেস্টিং সংস্থা নুসদ্যাট-ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব কর্তৃক মানটি নিশ্চিত হওয়ার পরে ওয়ালটনের প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে প্রকাশ করা হচ্ছে। ওয়ালটন রেফ্রিজারেটরগুলির বিএসটিআইয়ের পাঁচতারা শক্তি দক্ষতার রেটিং রয়েছে।

ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর উত্পাদন ও রফতানিতে আইএসও, ওএইচএসএএস, ইএমসি, সিবি, আরওএইচএস, এসএএসও, ইএসএমএ, ইসিএইচ, জি-মার্ক, ই-মার্ক ইত্যাদি শংসাপত্র পেয়েছে। আন্তর্জাতিক মানের ওয়ালটন ফ্রিজ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রফতানি করা হচ্ছে। আইএসও সার্টিফাইড ওয়ালটন সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম গ্রাহকদের কাছে বিক্রয় পরিষেবার পরে দ্রুত এবং সর্বোত্তম বিতরণ করছে। এর আওতায়, ওয়ালটনের সারা দেশে ৭৬ টি পরিষেবা কেন্দ্র রয়েছে। আড়াই হাজারেরও বেশি সেবা বিশেষজ্ঞ পোস্ট বিক্রয় পরিষেবা সরবরাহে নিযুক্ত আছেন।

শাওন/সাএ




Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102