শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪০ অপরাহ্ন

ময়মনসিংহে লেবু চাষে কৃষকের মুখে হাসি | Adhunik Krishi Khamar

  • আপডেট সময় রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১
  • ২৪
লেবু




ময়মনসিংহে লেবু চাষে কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। এবারের মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় লেবুর বাম্পার ফলন হয়েছে। এছাড়াও ন্যায্য দাম পাওয়ায় লেবু চাষিদের মুখে হাসি ফুটেছে। স্বল্প পুঁজি নিয়ে লেবু চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী হয়েছেন অনেক যুবক।

লেবু চাষি আনোয়ারুল বলেন, বর্তমানে লেবু বিক্রি করে পরিবারের ভরণপোষণের চাহিদা মেটানোর পরও বাড়তি আয় থাকে। চলতি বছর ভালো দাম পেলে বাগান থেকে এক থেকে দেড় লাখ টাকার ওপর লেবু বিক্রি করতে পারবো।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, বাগান পরিচর্যায় স্ত্রী ও সন্তানরা সহযোগিতা করায় শ্রমিক ব্যয় কম হয়। লেবু বাগানের আয় দিয়েই তাদের সংসারের সব খরচ চলে। রোপণের বছর বাদে প্রতি বছর একবার ডালপালা ছাঁটা, মাটি কোপানো, প্রতি তিন মাসে একবার নিড়ানি ও দুই থেকে তিন মাস অন্তর সেচ ও সামান্য জৈব সার দিতে হয়। ফলে একর প্রতি বার্ষিক খরচ হয় মাত্র ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। আর এক একর জমির লেবু বাগান থেকে আয় হয় কমপক্ষে তিন থেকে চার লাখ টাকা।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সোহেল রানা শেয়ার বিজকে বলেন, বর্তমানে লাভজনক ফসলের মধ্যে লেবু অন্যতম। কলমের চারা রোপণ করার দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে ফল আসা শুরু করে এবং সারা বছর ফল দেয়। হালকা দোআঁশ ও নিকাশ সম্পন্ন মধ্যম অম্লীয় মাটিতে লেবু ভালো হয়। কৃষকের অধিক আয়, লেবুর পুষ্টিগুণ ও বাজার চাহিদা পূরণের জন্য উদ্বুদ্ধকরণের মাধ্যমে আমার ব্লকে প্রায় তিন একর জমিতে ১৩টি লেবু বাগান রয়েছে। পাশাপাশি আরও লেবু বাগান সম্প্রসারণের চেষ্টা করছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাধন কুমার জানান, উপজেলার মাইজবাগ, আঠারোবাড়ি ও উচাখিলা ইউনিয়নে লেবুর চাষ বেশি হয়েছে। লেবু বাগানের মালিকদের সার্বক্ষণিক সঠিক পরার্মশ দিয়ে আসছি। লেবুচাষ লাভজনক হওয়ায় এরই মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অসংখ্য বাগান গড়ে উঠেছে।









Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102