বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১১:৩৭ অপরাহ্ন

কিভাবে গড়িমসি কাটিয়ে উঠে সত্যিকারের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো করা শুরু করবেন

  • Update Time : শুক্রবার, ২৩ জুলাই, ২০২১

ইংরেজী শব্দ Procrastination এর বাংলা অর্থ গড়িমসি করা। অলসতা এবং গড়িমসি করা অনেক সময় একই বিষয় মনে হতে পারে তবে এই দুই’য়ের মধ্যে পার্থক্য আছে।

গড়িমসি করা একটি সক্রিয় প্রক্রিয়া। যেমন ধরুন, আপনার কোন কাজটি করা উচিত তা আপনি জানেন কিন্তু সেই কাজের পরিবর্তে আপনি অন্য কিছু নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ছেন।

অন্যদিকে, অলসতা হচ্ছে উদাসীনতা, নিষ্ক্রিয়তা এবং কোনো কাজের প্রতি অনীহা প্রকাশ করাকে বোঝায়।

অলসতা করার চেয়ে গড়িমসি করা কিছুটা ভালো তবে আমরা যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য কোনো কাজে গড়িমসি করি, তবে এর ফলাফল আমাদেরকে হতাশাগ্রস্ত কমিটির সভাপতি বানাতে পারে।

আসুন যে ভাবে গড়িমসি কাটিয়ে উঠে সত্যিকারের গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো শুরু করা যায় এর কিছু উপায় খুঁজে বের করি।

#১। নিজেকে ক্ষমা করে দিন

আপনি হয়ত নিজের সাথে অনেক বার প্রমিস করেছেন যে, আজকে থেকে নতুন কিছু, ভালো কিছু করা শুরু করবেন কিন্তু যে কোনো কারনে শুরু করতে পারেননি।

এই অবস্থায় যদি নিজেকে বলেন আমার আরো আগে করা উচিত ছিল, আমি কিছুই করতে পারি না, আমার ভাগ্যই ভালো না, আমাকে দিয়ে কিছুই হবে না তাহলে বিশ্বাস করুন আপনি কখনোই শুরুই করতে পারবেন না।

নিজেকে দোষী মনে করার কারনে বিষয়টি আরও খারাপ হয়ে যাবে। আপনি যদি আপনার স্বপ্ন পুরনের জন্য কাজ না করেন তবে দেখবেন আপনাকে অন্য কেউ ভাড়া করে নিয়ে যাবে তাদের স্বপ্ন পূরণ করার জন্য।

তাই এখন যেই অবস্থায় থাকেন না কেন এখনই নিজেকে ক্ষমা করে আপনার স্বপ্ন পুরনের জন্য কাজে নেমে পড়ুন।

#২। নিখুঁত হতে চাওয়া বাদ দিন

আমাদের মধ্যে গড়িমসি কাটিয়ে উঠতে না পারার অন্যতম প্রধান কারন নিখুঁত হতে চাওয়া।

আমি তো এই কাজের যোগ্য না, আমার মধ্যে এই কাজটি করার দক্ষতা নেই, ইত্যাদি মনোভাব আপনাকে দিন দিন ক্ষতির মধ্যে ফেলে দিবে।

কোনো কাজ শুরু করার আগে যদি একদম নিখুঁত ভাবে শুরু করতে চান তবে তা কোন দিনই করতে পারবেন না।

#৩। কেন শুরু করবেন তার কারনগুলো খুঁজুন

আমরা অনেক সময় কোন কাজ শুরু করতে গড়িমসি করি এর অন্যতম কারন ঐ কাজের সুবিধাগুলো সম্পর্কে ধারনা না রাখা।

আপনি যেই কাজটি করতে চাচ্ছেন সেই কাজটি শেষ করতে পারলে আপনার কি কি লাভ হবে তার একটি তালিকা করতে হবে।

যখন আপনি জানবেন এই কাজটি করার ফলে আপনার লাভ কি হবে তখন সেই কাজটি করার জন্য যথেষ্ট অনুপ্রেরণা পাবেন।

#৪। বড় স্বপ্নকে ছোট ছোট লক্ষ্যে ভাগ করুন

কোণ কাজে গড়িমসি করার অন্যতম কারন অনেক বড় কাজকে আমরা এক সাথে শেষ করতে চাই।

যখন সেই কাজের পিছনে কি পরিমান শ্রম দিতে হবে, কত দিন সময় লাগবে তা হিসাব করি তখন ভয় পেয়ে যাই এবং নিজেকে বলি এই তো কিছু দিন পরে শুরু করব।

এভাবে আমাদের মধ্যে গড়িমসি করার প্রবণতা শুরু হয়। এই অবস্থায় আমাদের উচিত বড় স্বপ্নকে ছোট ছোট লক্ষ্যে ভাগ করে ফেলা।

যখন আমরা ছোট লক্ষ্যগুলো পূরণ করতে পারব দিন শেষে আমরা বড় স্বপ্নকেও জয় করতে পারব।

#৫। কাজের একটি ডেটলাইন ঠিক করুন

নিজের সাথে নিজের প্রতিজ্ঞা করতে হবে যে আমি এই কাজটি আগামী এত দিনের মধ্যে শেষ করব।

যখন এই রকম একটি ডেটলাইন ঠিক করবেন তখন অবশ্যই সেই কাজটি বাস্তববাদী এবং অর্জনযোগ্য কিনা তা জানতে হবে।

কেননা, নিজের সাথে অনেক বেশী কঠোর হলে তা হিতের বিপরীত হতে পারে।

#৬। আপনার কাজের কথা অন্যকে জানান

আমি আপনার পরিকল্পনা সবাইকে জানাতে বলছি না, তবে এমন কাউকে খুঁজে বের করুন যায় সাথে আপনার কাজের অগ্রগতি, সামনের পদক্ষেপ, করণীয় কি ইত্যাদি বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করতে পারবেন। এর ফলে নিজের কাছেই একটি দায়বদ্ধতা চলে আসবে সেই কাজটি ঠিক সময়ের মধ্যে শেষ করতে। 



Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102