বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

বিক্রি না হওয়ায় চামড়া মাটিচাপা দিল কুড়িগ্রামের মাদরাসা কর্তৃপক্ষ ও ব্যবসায়ীরা | Adhunik Krishi Khamar

  • Update Time : রবিবার, ২৫ জুলাই, ২০২১




চলতি বছর ঈদ পরবর্তী পশুর চামড়া নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর মৌসুমী চামড়া ব্যবসায়ী ও মাদরাসা কর্তৃপক্ষরা। পাইকারি বাজার ও চামড়ার আড়তে দাম না থাকায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে অবিক্রিত চামড়া মাটিচাপা দিয়েছেন তারা।

ব্যবসায়ীদের ভাষ্যমতে, একটি বড় গরুর চামড়া ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায় ও ছাগলের চামড়া ১৫ থেকে ২০ টাকায় কিনেছেন। কিন্তু সেই চামড়া আড়ত ও পাইকারি বাজারে আনার পর গরুর চামড়ার দাম ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা আর ছাগলের চামড়ার দাম ১০ টাকায় এসে ঠেকেছে।

এদিকে উপজেলার একাধিক কওমি মাদারাসা ও এতিমখানা কর্তৃপক্ষ বলছেন, চাহিদা না থাকায় বিভিন্ন অজুহাতে দাম কম বলছেন আড়তদার ও পাইকাররা। কিছু চামড়া বিক্রি করতে পারলে বেশিরভাগ চামড়া ক্রেতার অভাবে অবিক্রীতই থেকে গেছে। চামড়া প্রক্রিয়াজাত করে আরও লোকসানের আশংকায় অবিক্রিত চামড়া মাটিচাপা দিতে বাধ্য হচ্ছেন বলেও তারা জানান।

পশ্চিম চাট গোপালপুর সিদ্দিকীয়া হাফেজিযা মাদরাসার সভাপতি মোকলেছুর রহমান বলেন, ১২টি গরুর চামড়া এক হাজার ৬৭০ টাকা বিক্রি করেছি। ছাগলের তিনটি চামড়া ও ১টি ভেড়ার চামড়া বিক্রি না হওয়ায় মাটিতে পুঁতে রাখা হয়েছে।

মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ী আক্কাস আলী জানান, পাড়া-মহল্লায় ঘুরে ঘুরে চামড়া কিনেছি। চামড়া কেনার পর শ্রমিক, লবণ, পরিবহন ও অন্যান্য খরচ মিলিয়ে আরো ১৫০ থেকে ২০০ টাকা ব্যয় করতে হয়েছে চামড়া প্রতি। পাইকাররা কেনা দামের অর্ধেকও বলছে না।









Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102