রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

পেঁপে চাষে কতিপয় রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার | Adhunik Krishi Khamar

  • Update Time : শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১


পেঁপের তেমন কোন ক্ষতিকর পোকা মাকড় নেই। রোগবালাই এর মধ্যে ঢলে পড়া রোগটি প্রধান। এ রোগে প্রচুর চারা গাছ মারা যায়। তাছাড়া এ রোগের জীবাণুর আক্রমণে বর্ষা মৌসুমে কান্ড পঁচা রোগ হয়ে থাকে।

প্রতিকারঃ


১.গাছের গোড়ার পানি নিষ্কাশনের ভাল ব্যবস্থা রাখতে হবে।
২. রেডোমিল এমজেড -৭২ প্রতি লিটার পানিতে ২ গ্রাম হারে মিশিয়ে ৭দিন পর পর গাছের গোড়ার চারি পার্শ্বের মাটিতে প্রয়োগ করতে হবে।

পাউডারী মিলডিউ


এ রোগে পাতার উপর এবং কোন কোন ক্ষেত্রে ফুলের গায়ে ধুসর বা সাদা পাউডারের আবরণ পড়ে। এ রোগে আক্রমনের কারনে ফলন কমে যায়।

প্রতিকার:


১। আক্রান্ত গাছের মরা ডাল ও পাতা পুড়ে ফেলতে হবে।
২। প্রতি লিটার পানিতে ২ গ্রাম হারে থিয়োভিট বা ওয়েটেবল সালফার ৩০০ গ্রাম প্রতি ১০০ লিটার পানিতে বা ১ গ্রাম ব্যাভিস্টিন মিশিয়ে ১৫ দিন অন-র ২ থেকে ৩ বার সেপ্র করে এ রোগ দমন করা যায়।

কান্ড পঁচা রোগ


এ রোগ হলে গাছের গোড়ায় বাদামি বর্ণের ভেজা দাগের সৃষ্টি হয় এর ফলে আক্রান- চারা গাছ ঢলে পড়ে এবং মরে যায়।

প্রতিকার:


১। আক্রান্ত চারা গাছ উঠিয়ে পুড়ে ফেলতে হবে।
২। রিডোমিল এমজেড-৭২ ০.২ মি.লি হারে প্রতি লিটার পানিতে মিশিয়ে আক্রান্ত গাছে ছিটিয়ে দিলে সুফল পাওয়া যায়।

মোজাইক রোগ


এ রোগ হলে আক্রান্ত গাছের পাতায় সবুজ ও হলুদ রংয়ের দাগ দেখা যায়। পাতা খর্বাকৃতির ও আকারে ছোট হয়। জাব পোকা এ রোগ ছড়িয়ে থাকে।

প্রতিকার:


১। আক্রান্ত গাছ উঠিয়ে পুড়ে ফেলতে হবে।
২। বাহক পোকা দমনের জন্য মেলাথিয়ন প্রতি লিটার পানিতে ২ মি.লি হারে মিশিয়ে ৫-৭ দিন পর পর ষেপ্র করতে হবে।
৩। জিংকের ঘাটতির জন্য মোজাইক লক্ষণ দেখা দিলে গাছের গোড়ায় গাছ প্রতি ১৫ গ্রাম জিংক সালফেট প্রয়োগ করলে এ সমস্যা দুরীভূত হয়।

এ্যানথ্রাকনোজ


ফলের বোটার দিকে গোলাকার দাগ দেখা যায় যা কালো হয়ে পচন ধরে। ডাইথেন এম-৪৫ প্রতি লিটার পানিতে ২ গ্রাম মিশিয়ে স্প্রে করে এ রোগ দমনের ব্যবস্থা করা যেতে পারে।


আরও পড়ুনঃ যে কারণে জমিতে জৈব সার ব্যবহার করবেন


কৃষি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার



Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102