শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
চালের বস্তায় নিষিদ্ধ পলিব্যাগের ব্যাবহার ভ্রাম্যমাণ আদালতে দুই ব্যবসায়ীকে ৩০হাজার টাকা জরিমানা মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশন পুশ করায় রোগীর শরীরে জ্বালাযন্ত্রনা ফার্মেসী সিলগালা:পলাতক গ্রাম্য চিকিৎসক বাংলাদেশকে জানতে হলে আগে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে ….এমপি মিলন সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে মোংলায় বিক্ষোভ মিছিল সারা খুলনা অঞ্চলের সব খবরা খবর নদীর পাড়ে শাড়ি পরে দুর্দান্ত ড্যান্স দিলো সুন্দরী যুবতী যুদ্ধের ধ্বংসস্তুপের উপর দাঁড়িয়েও বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি কাঠামো দাঁড় করিয়েছেন – মোস্তাফা জব্বার – টেক শহর বিশ্বকাপে পর্তুগালকে ফেবারিট মানছেন আর্জেন্টাইন তারকা – স্পোর্টস প্রতিদিন বিশ্ববাজারে আবারও কমল জ্বালানি তেলের দাম গর্তে লুকিয়ে থাকা ইঁদুরটি দেখলো চাষী ও তার স্ত্রী দুজনে মিলে

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাটির হাঁড়িতে কবুতর পালন, স্বাবলম্বী হচ্ছেন মানুষরা! | Adhunik Krishi Khamar

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৩ আগস্ট, ২০২১




মাটির ঘরের কার্নিশে মাটির তৈরি হাঁড়িতে কবুতর পালনে স্বাবলম্বী হচ্ছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার মানুষরা। নিজেদের প্রয়োজন মেটানোর পাশাপাশি বাড়তি উপার্জন হিসেবে কবুতর পালন করে ব্যাপক সফলতা পেয়েছেন এলাকার অনেক বাসিন্দা।

উপজেলার ইসলামপুরের আনারুল ইসলাম বলেন, শখের বসেই মাটির হাঁড়িতে কবুতর পালন শুরু করি। বর্তমানে প্রায় ৭০ জোড়া কবুতর আছে। নিজের প্রয়োজন মিটিয়ে কবুতর বিক্রি করে ভাল টাকাই আয় হয়।

মিল্লাত নামে আর এক কবুতর পালনকারী বলেন, কবুতর পালনে কোন খাবার কিনতে হয়না। বাড়ীর আশেপাশের মাঠে সরিষা, কাউন, আখরি ও খুদ খেয়ে থাকে। কবুতরের বাচ্চা বিক্রি করেই মাসে তার ৪ হাজার টাকা আয় হয় বলে জানান।

নাচোল উপজেলার হাটবাকল গ্রামের আজিম আলী বলেন, বর্তমানে বাড়ীতে প্রায় ১০০ জোড়া কবুতর আছে। প্রতি মাসে ২৫-৩০ জোড়া বাচ্চা বিক্রি করি। এক জোড়া বিক্রি হয় ২০০-২৫০ টাকা।

টিকইল এলাকার হোসেন আলী বলেন, বর্তমানে কবুতর বিক্রির টাকা দিয়েই সংসার চলছে। কবুতর পালনে তেমন কোন খরচ হয়না। বাড়ির দোতলার কার্নিশে প্রায় ১৫০টি মাটির হাঁড়ি আছে। তাতে প্রায় ৯০ জোড়া বিভিন্ন জাতের কবুতর আছে।









Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102