রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৪৬ অপরাহ্ন

রোনালদোর সঙ্গে রাত কাটানোর দাবী পর্তুগীজ মডেলের (ভিডিও) – স্পোর্টস প্রতিদিন

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১১৮
রোনালদোর সঙ্গে রাত কাটানোর দাবী পর্তুগীজ মডেলের (ভিডিও) - স্পোর্টস প্রতিদিন

সুখের সংসার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। বান্ধবী জর্জিনা রোদ্রিগুয়েজের সঙ্গে সন্তানদের নিয়ে সুখেই আছেন তিনি। সেই সুখের সংসারে হঠাৎ করেই আগুন লাগানোর চেষ্টা এক পর্তুগীজ মডেলের।

সম্প্রতি জুভেন্টাস থেকে ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডে যোগ দিয়েছেন রোনালদো। দ্বিতীয়বারের মত ম্যানইউর জার্সিতে অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন তিনি। আর এই সময়েই কিনা একজন পর্তুগীজ মডেল অপ্রীতিকর এক দাবী করে বসলেন।

নাতাচা রোদ্রিগুয়েজ নামে এক পর্তুগীজ মডেল দাবী করেছেন যে, তিনি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে পুরো এক রাত অতিবাহিত করেছিলেন। দুই মাস ধরে কথা বলার পর তারা এক রাত একসঙ্গে কাটিয়েছিলেন।

সম্প্রতি দ্য সানকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “বেলা একটার দিকে আমি রসিকতা করেই আমার একটি গোপন ছবি পাঠিয়েছিলাম। আমি কল্পনাও করিনি যে রোনালদো তার রিপ্লে দিবে। কিন্তু ৬টার সময় সে রিপ্লে দিয়েছিল।”

২০১৫ সালে এই মডেল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর বাড়িতে যান সেটাও জানিয়েছেন। সেখানে যাওয়ার পরই দুজনে রাত কাটিয়েছেন একসঙ্গে।

তিনি বলেন, “আমি জুতা খুলে জুস পান করেছিলাম। তারপর তার সঙ্গে বসে কথা বলেছিলাম। এরপর আমি উঠে দাড়ালাম, আমার প্যান্ট নামিয়ে দিলাম আমার নিচের অংশটি তাকে দেখানোর জন্য। সে দেখে বলেছিল, তার খুব পছন্দ হয়েছে।”

সেই রাতে তারা দুজনেই একসঙ্গে সময় কাটানোর পর ২০১৭ সালে ফের রোনালদো তাকে ম্যাসেজ পাঠিয়েছিল বলে জানান এই মডেল। তবে সেই ম্যাসেজের পর রোনালদো তাকে সব ধরণের সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ব্লক করে দেয় এবং নাম্বারও ব্লক করে দেয়। তারসঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

পর্তুগীজ এই মডেল বলেন, “ক্রিশ্চিয়ানো আমাকে ইটের মত ফেলে দিয়েছিল এবং সে জর্জিনার সঙ্গেও একই কাজ করতে পারত।

“তারা বলে, চিতাবাঘ তাদের দাগ পরিবর্তন করে না এবং পেশাদার ফুটবলাররা সুন্দরী নারীদের কাছ থেকে অনেক মনোযোগ পায় যারা তাদের দিকে নিজেকে ছুড়ে ফেলে।

“ক্রিশ্চিয়ানোকে ধরতে পারা যেকারও জন্য দুর্দান্ত হবে। তাই জর্জিনাকে অবশ্যই তার উপর নজর রাখতে হবে যদি তাদের মধ্যে বিশ্বাস থাকে। সে আমার সঙ্গে যেভাবে প্রতারনা করেছিল, যেভাবে ব্লক করে দিয়েছিল তা আমাকে কষ্ট দিয়েছিল, এখনো কষ্ট দেয়।”

 



Source by [সুন্দরবন]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি
সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102