মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ট্যুর বিডি ট্রাভেল গ্রুপের অ্যাডমিন হতে চান ইবনে বতুতা মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান ২০২১ এ ৮৮ কোটি টাকা মূল্যের ১ কোটি ১৩ লাখ মিটার অবৈধ জাল আটক করেছে নৌবাহিনী ডুমুরিয়ায় দেদারসে চলছে থ্রী হুইলার, প্রতিনিয়ত ঘট‌ছে দুর্ঘটনা গোপালগঞ্জে দুলাল শেখ হত্যা মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদন্ড শুটকি মৌসুমকে ঘিরে দুবলার চরে যেতে শুরু করেছেন জেলেরা ভালোবাসার মানুষকে বিয়ে করে রাজত্ব হারালেন জাপানের রাজকুমারী জামিন পেলেন চিত্রনায়িকা পরীমনি ভিনিসিয়াস বার্সা ভক্ত, বার্সার জন্য সে কেঁদেছিল! – স্পোর্টস প্রতিদিন ইলিশ ধরায় নিষেধাজ্ঞায় খুলনা ৪৯ মামলায় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা জনগণের কল্যাণে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর কাজ করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী

জানি সঞ্চয় প্রয়োজনীয়, কিন্তু সঞ্চয় করতে পারি না – উপায়?

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১
জানি সঞ্চয় প্রয়োজনীয়, কিন্তু সঞ্চয় করতে পারি না। উপায়

সঞ্চয়ের মূল্য আমরা কম বেশি সবাই জানি। সঞ্চয়কে আমরা বিপদের বন্ধুও বলতে পারি। টাকার মূল্য, এর প্রয়োজনীয়তা ব্যাখার কোন প্রয়োজনই নাই। দূর্দিনে মানুষের কাছে হাত পাতার চেয়ে লজ্জার আর কিছু নেই।

কিন্তু সঠিক সময় সঠিক পদক্ষেপ নিলে জীবন যুদ্ধ হেরে যাওয়ার সম্ভাবনা কমে যায় অনেকটা। সুযোগ বার বার আসে না। ঠিক তেমনি বিপদও বলে আসে না। নিজের ভাল সময় যদি আমরা একটু সচেতন ভাবে চলতে পারি, তবে বিপদের দিনে আমাদের দিশেহারা হতে হবে না।

আবার আপনি চাইলে অন্যের বিপদে পাশে দাঁড়াতে পারবেন। তবে টাকা এমনই এক জিনিস, যা আমাদের কারো কাছ থেকেই কখনো আশা না করাই ভাল। তাই সময় থাকতেই সচেতন হন। আজ, এখনই। নিজেই নিজেকে অনুপ্রেরনা দিন সঞ্চয়ের জন্য।

করোনা মহামারীর কারনে থেমে গেছে জীবনের চাকা। আমরা আজ গৃহবন্দী। সংক্রামন ঠেকাতে সরকারের তরফ থেকে বার বার লকডাউন ঘোষনা করা হয়েছে।

মানুষের হাতে টাকা না থাকায় কেনা বেচার দুনিয়ায় ধস নেমেছ, আবার অর্থনৈতিক এই টানাপোড়নে চাকরি চ্যুত হয়েছে হাজার হাজার মানুষ।

বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, ছোট ব্যবসায়ীদের অবস্থা শোচনীয়। বাধ্য হয়েই প্রতিষ্ঠানগুলোকে খরচ কমানোর সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে, যার ফলে থেমে গেছে অনেক মানুষের আয়ের পথ।

ধার চাইলেও এসময় পাওয়া যাচ্ছে না। আবার কবে শোধ দিতে পারবো, এই চিন্তায় ধার করাও যেন আরেক বিপদ। এমন অবস্থায় অনেক পরিবার কিন্তু জমানো অর্থ দিয়েই এখনো পর্যন্ত চলছে।

ব্যবসায়ী থেকে শুরু করে চাকুরিজীবী এমন অনেক পরিবারকে দেখা যাচ্ছে সঞ্চয় দিয়েই এই দূর্যোগ মোকাবেলা করছে।

এখন প্রশ্ন হল তারা যদি আগে সঞ্চয় না করতো, তবে কেমন করে চলত তাদের বর্তমান জীবন-জীবিকা। অতীতের একটি ছোট সিদ্ধান্ত আজ তাদের জীবন-যাপনের একমাত্র মাধ্যম।

অনেকেই আবার চাকরি চলে যাওয়ার পর সঞ্চয়ের থেকে অল্প পুঁজি নিয়ে নিজের ছোট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলেছেন। গড়ে তুলেছেন আয়ের বিকল্প উৎস। সুতরাং সচেতন হওয়ার এখনই সময়। আজকের একটি ছোট পদক্ষেপ, আপনাকে এগিয়ে রাখবে ভবিৎষতের জন্য।

সঞ্চয় কি, সঞ্চয়ের উপকারিতা জানি কিন্তু সঞ্চয় করি না। কেন? আমার খরচ অনেক বেশি, আয় কম, টাকা হাতে থাকে না, ইত্যাদি নানা অযুহাত আমাদের। খরচ থাকবে এটাই নিয়ম।

আয় একদিনে পরিবর্তন হবে না। টাকা কারো হাতে থাকে না, আপনাকেই টাকা রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। আবার অনেকেই বলেন পরে সঞ্চয় করবো। এই পরের সময়টা কখন সেটা তিনি নিজেই জানেন না।

সুতরাং সে সময় আর হয়ে ওঠে না। সঞ্চয়ের জন্য প্রথম পদক্ষেপ আপনেকেই নিতে হবে। একসময় এটি আপনার অভ্যাসে পরিণত হবে। কিভাবে আপনি সঞ্চয়ের জন্য অনুপ্রানিত হবেন, আজ আমরা সেই বিষয়ে কথা বলব। আরো পড়ুন – সঞ্চয় এবং বিনিয়োগের মধ্যে পার্থক্য

১. বাজেট করুন

আপনার আয় যেমন, খরচও তেমন। যিনি মাসে ১ লাখ টাকা আয় করেন তার খরচের হিসাবের সাথে যিনি মাসে ৫০ হাজার টাকা আয় করেন তার খরচের হিসাব মিলবে না। আর তাই আপনার আয় অনুসারে সঞ্চয়ের এবং খরচরে বাজেট করুন। সবসময়ই চেষ্টা করুন নির্ধারিত বাজেট অনুসারে চলতে।

২. ছোট করে সঞ্চয় শুরু করুন

আবেগের বশে আপনার আয়ের থেকে বড় একটি অংশ সঞ্চয়ের জন্য সরিয়ে ফেলবেন না। এতে করে আপনার মাসিক খরচে টান পড়বে, আপনি বাধ্য হবেন সঞ্চয় থেকে আবার টাকা নিতে। সঞ্চয়ে থেকে একবার টাকা সরিয়ে ফেললে, আপনি সেখান থেকে খরচ করতেই থাকবেন। এবং মাস শেষে বলবেন আমাকে দিয়ে সঞ্চয় হয় না। তাই ভুল করেও এই ভুল করবেন না। প্রথমে ছোট ছোট সঞ্চয় করুন।

সঞ্চয়ের মনোভাব নিজের মধ্যে গড়ে তুলুন। বাড়তি টাকা থাকার আনন্দ নিজেকে অনুভব করতে দিন। এরপর থেকে আপনি নিজেই প্রেরনা পাবেন সঞ্চয়ের জন্য।

৩. লক্ষ্য নির্ধারন করুন

জীবনে কিছুই লক্ষ্য ছাড়া অর্জন করা সম্ভব হয় না। সঞ্চয়ের জন্যও লক্ষ্য নির্ধারন করুন। ৩ মাস/ ৬ মাস/ ১ বছর/ ৫ বছরের লক্ষ্য নির্ধারন করতে পারেন। যেমন আগামী ১ বছর পর আমি ২ লাখ টাকার মালিক হব। সেভাবেই এগিয়ে যাবেন। দেখবেন আপনি নিজেই আপনার খরচ গুলো কমিয়ে আপার লক্ষ্য পূরনের চেষ্টা করছেন। জীবনে কিছু অর্জনের জন্য লক্ষ্যের কোন বিকল্প নেই।

৪. নিজের ভবিষ্যৎত কল্পনা করুন

ভবিষ্যৎত কেমন হবে আমরা কেউ জানি না। আর জানি না বলেই আমরা সেই ভবিষ্যৎতকে নিয়ে এত ভাবি। যখন আপনার প্রবল খরচের ইচ্ছে হচ্ছে, কিংবা আপনি সঞ্চয়ের জন্য কোন উৎসাহ পাচ্ছেন না তখন নিজের ভবিষ্যৎত কল্পনা করুন।

আজকের এই ছোট আত্মত্যাগ আপনাকে কত বড় কিছু দিবে, সেটা ভাবুন। সাধারণত আমার প্রত্যেকেই নির্দিষ্ট একটি উদ্দেশ্যকে কেন্দ্র করে সঞ্চয় করি। যেমন অবসর জীবন, বাড়ি বা গাড়ি, অন্যান্য সখ।

নিজের সেই অবস্থান এবং আনন্দের কথা ভাবুন। আবার এটাও ভাবুন বিপদের দিনে আপনার বিশস্ত বন্ধু আছে আপনার পাশে, আপনার সঞ্চয়। নিজের থেকেই আত্নবিশ্বাসী অনুভব করবেন।

৫. মূল্যায়ন করুন

নিজেকে এগিয়ে রাখতে সবচেয়ে ভাল উপায় হল নিজেকে প্রতিনিয়ত মূল্যায়ন করা। আপনি গত ৬ মাসে কি কি করলেন তার হিসাব করুন, নিজের লক্ষ্য থেকে সরে গেলে, তার কারণ কি কি সেটি নিয়ে ভাবুন।

এই ভাবনাই আপনাকে পরবর্তী সময় নির্দিষ্ট পরিমান সঞ্চয় করতে অটুট রাখবে। সঞ্চয় এমন এক বিষয়, সবাই আপনাকে বলবে, উৎসাহ দিবে, কিন্তু কেউ জোর করবে না।

আর তাই নিজেকেই এর জন্য অনুপ্রাণিত করতে হবে। মূল্যায়ন করলে আপনি নিজেই উপলদ্ধি করবেন কোথায় আপনি ভুল করছেন। আর সেভাবেই পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে পারবেন।

৬. ফ্যাইন্যান্সিয়াল ব্লগ পড়ুন

অনলাইন সেবায় পৃথিবী একন হাতের মুঠোয়। এখন আর বই পড়তে আমাদের দূরদূরান্ত যেতে হয় না। এখন ঘরে বসেই আমরা জানতে পারি, শিখতে পারি অনেক কিছু। নিজেকে মোটিভেট রাখতে নিয়মিত ব্লগ পড়ুন। আপনি জানতে পারবেন বড় বড় মানুষেরাও এক সময় টাকার সমস্যা, ঋণের ভারে জর্জরিত ছিল।

কঠোর পরিশ্রম এবং ইচ্ছে শক্তি দিয়েই তারা সেখান থেকে বের হয়ে আসছে। আপনি আরো জানতে পারবেন ফাইন্যান্স সংক্রান্ত নানান বিষয়। মনে রাখবেন জ্ঞান এমন এক জিনিস যার তুলনা সে নিজেই।

৭. সহভাগিতা করুন

কোন কোন সময় নিজেকে মোটিভেট রাখার সবচেয়ে ভাল উপায় হল নিজের সঞ্চয়ের গল্প অন্যের সাথে শেয়ার করুন।

আপনি যখন অন্যের সাথে শেয়ার করবেন, আপনার নিজের অর্জন এবং এর পিছনে আপনার ত্যাগস্বীকারের কথাও বলতে পারবেন। এটিই আপনাকে পরবর্তী সময়ে অনুপ্রেরনা দিবে।

যাকে বলবেন তিনিও আপনাকে ইতিবাচকভাবে মূল্যায়ন করবে এবং আপনার উৎসাহ বেড়ে যাবে দ্বিগুণ। অনেকের মনে হতে পারে আমার টাকা আছে, এমন গল্প না করাই ভাল।

প্রয়োজনবোধে এমন গল্প  না করাই ভাল। তবে আমাদের জীবনেও এমন অনেক মানুষ আছে যাদের আমরা নিসংকোচে একথা বলতে পারি।

আবার বন্ধু-বান্ধবের সাথেও শেয়ার করতে পারি, তাদেরও উৎসাহ দিতে পারেন। আপনার জন্য যখন কেই অনুপ্রাণিত হবে, আপনি নিজেও তার সাথে অনুপ্রাণিত হবেন।

জীবন চলার পথ কখনোই মসৃন নয়। আজ ভাল, কাল হয়তো খারাপ হবে। আবার আজ খারাপ আছি, আগামীকাল হয়তো ভাল থাকব।

এই অনিশ্চয়তা আছে বলেই জীবনের এত রঙ, এত রূপ। তবে এমন ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভাল উপায় হল আগাম প্রস্তুতি। আমরা যদি আগেই প্রস্তুত থাকি তবে ঝড় আসলে মোকাবেলা করা তুলনামূলক সহজ হবে।

সঞ্চয়ী মনোভাব আপনার জীবনেকে অনেক কিছু দিবে, কেড়ে নিবে না কিছুই। আপনাকে তৈরী রাখবে আগামীর জন্য।

সঞ্চয় আপনার স্বপ্নপূরণের চাবি, বিপদের বন্ধু, এবং আপনার ভবিৎষতের সম্পদ। ভিজিট করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল – Bangla Preneur YouTube Channel  



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০২১
Designer: Shimulツ
themesba-lates1749691102