সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৭ পূর্বাহ্ন

মেহেরপুরে ড্রাগন চাষে আব্দুল মাবুদের সাফল্য | Adhunik Krishi Khamar

  • Update Time : রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১




মেহেরপুরে ড্রাগন চাষে আব্দুল মাবুদের সাফল্য এসেছে। ইউটিউব দেখে ড্রাগন ফল চাষে উদ্বুদ্ধ হন এই যুবক। পরে পরীক্ষামূলকভাবে এক বিঘা জমিতে ড্রাগন ফল এবং তিনবিঘা জমিতে মাল্টা বাগান শুরু করেন তিনি। তার সফলতা দেখে এলাকার অন্যরাও ড্রাগন ফল চাষে উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন। এখন তিনি ড্রাগণ, মাল্টা, কাগজি লেবুসহ বিভিন্ন ফলের চাষ করছেন।

মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মহিষা খোলা গ্রামের আকবর আলীর ছেলে আব্দুল মাবুদ। পরিবারে তিন বোন এক ভাই। পিতার সংসারের হাল ধরতে ২০১৫ সালে মালয়েশিয়া যান। পরিবার পরিজন ছেড়ে প্রবাস জীবনে নানা কষ্টের সম্মুখীন হতে হয় তাকে। অনেক টাকা ধারদেনা করে বিদেশে গেলেও আর্থিক অনটনের মধ্যেই থাকতে হতো বেশির ভাগ সময়। বিদেশে বসেই স্বপ্ন দেখেন দেশে কৃষি কাজ করেও সাবলম্বী হওয়া যায়।

জানা যায়, ২০১৮ সালের শেষদিকে দেশে ফিরে আসেন আব্দুল মাবুদ। নাটোর জেলা থেকে চারা সংগ্রহ করে নিজ জমিতে ৪০ শতাংশ ড্রাগন ফলের চারা রোপণ করেন। এক বিঘা জমিতে সিমেন্ট আর রডের পিলার, চারা ও পরিচর্যা দিয়ে খরচ হয় প্রায় চার লাখ টাকা। ড্রাগন গাছে ফল দেয়া শুরু করলে তেমন খরচ নেই। একেকটি গাছ এক টানা ১০-১৫ বছর ফল দিতে পারবে। প্রথম পর্যায়ে লাভের মুখ দেখেন আব্দুল মাবুদ। বর্তমানে তিন বিঘা জমিতে ড্রাগন ফলের আবাদ করেছেন। ড্রাগন ফল দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ। দেশের বিভিন্ন জেলাতেও চাহিদা রয়েছে। পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি ড্রাগন ফল বিক্রি হচ্ছে ২৫০-২৮০ টাকায়। খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৩০০ টাকায়।

আব্দুল মাবুদ বলেন, ইন্টারনেট ও ইউটিউব দেখে ড্রাগন ফলের চাষ শুরু করি। নাটোর জেলা থেকে ৬৫ টাকা করে প্রতি পিস ড্রাগন ফলের চারা ক্রয় করি এবং তা নিয়মানুযায়ী রোপণ করি। এখন আমার তিন বিঘা জমিতে ড্রাগন ফলের চাষ হচ্ছে। অনেকেই ছাঁদ বাগানের জন্য এবং চাষের জমিতে রোপণের জন্য চারা কিনতে আসছেন। এলাকায় ড্রাগন চাষের পরিধি বৃদ্ধিতে খুব কম মূুল্যে চারা বিক্রি করছি।

জেলার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক স্বপন কুমার জানান, ড্রাগন ফলে অনেক পুষ্টিগুণ রয়েছে। বাজারে চাহিদা এবং দাম দুটোই ভালো পাওয়া যাচ্ছে। প্রবাস ফেরত যুবক আব্দুল মাবুদ হতাশ না হয়ে ড্রাগন চাষে লাভবান হচ্ছেন। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে।









Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102