মঙ্গলবার, ১৬ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম
সারা খুলনা অঞ্চলের সব খবরা খবর নদীর পাড়ে শাড়ি পরে দুর্দান্ত ড্যান্স দিলো সুন্দরী যুবতী যুদ্ধের ধ্বংসস্তুপের উপর দাঁড়িয়েও বঙ্গবন্ধু প্রযুক্তি কাঠামো দাঁড় করিয়েছেন – মোস্তাফা জব্বার – টেক শহর বিশ্বকাপে পর্তুগালকে ফেবারিট মানছেন আর্জেন্টাইন তারকা – স্পোর্টস প্রতিদিন বিশ্ববাজারে আবারও কমল জ্বালানি তেলের দাম গর্তে লুকিয়ে থাকা ইঁদুরটি দেখলো চাষী ও তার স্ত্রী দুজনে মিলে কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ কর্পোরেশন এ ১২ ধরনের ১৩০ টি পদের বিশাল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ। চকবাজারে আগুনে নিহতদের লাশ ডিএনএ পরীক্ষার পর হস্তান্তর ডিম, মুরগি ও বাচ্চার আজকের (১৫ আগস্ট) বাজারদর | Adhunik Krishi Khamar লেয়ার মুরগি পালনে লিটার ব্যবস্থাপনা ও খাদ্য প্রয়োগ | Adhunik Krishi Khamar

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব – ইন্টারভিউ প্রশ্ন ও উত্তর

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব – why we should hire you

সাধারণত ইন্টারভিউ বোর্ডে সর্বাধিক প্রশ্ন করা হয়, কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিবএকটি ইন্টারভিউয়ের জন্য সর্ব্বোচ সময় থাকে ১৫/২০ মিনিট। এই অল্প সময়ের মধ্যে একজন কর্মীকে পূর্নাঙ্গ রূপে যাচাই বাছাই করা বেশ কঠিন।

একজন প্রার্থীর পক্ষেও এত অল্প সময়ে নিজের সকল সক্ষমতা তুলে ধরা চ্যালেঞ্জিংও বটে। এজন্য বিভিন্ন ধরানের প্রশ্ন করে একজন কর্মীকে মূল্যায়ন করা হয়। কর্মীর দক্ষতা যাচায়ের জন্য এটি একটি ভাল প্রশ্ন।

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব? বা কেন আপনিই চাকুরিটির জন্য যোগ্য? আপানরই কেন চাকুরিটি পাওয়া উচিত? একই প্রশ্ন বিভিন্ন আঙ্গিকে করা হয়। খুব সহজ সরল প্রশ্ন মনে হলেও, এটির উত্তর দেওয়া বেশ কঠিন।

বেশির ভাগ মানুষই ভাবে আমি বেশ ভাল উত্তর দিয়েছি কিন্তু তারা বুঝতেও পারে না যে তারা কি ভুল করেছে। সুন্দর ভাবে গুছিয়ে এই প্রশ্নের উত্তর দিতে পারলে পরীক্ষকদের মন জয় করে চাকুরিটি নিশ্চিত করা সম্ভব।

এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য আপনাকে আগে বুঝতে হবে যে, প্রশ্ন কর্তা কি শুনতে চান?

প্রতিযোগিতার এই বাজারে টিকে থাকা মস্ত বড় লড়াই। নতুন একটি চাকুরি জোগাড় করা যুদ্ধের সম্মান। এই প্রতিযোগিতার বাজারে শুধু সার্টিফিকেট থাকলেই হবে না।

আপনাকে অবশ্যই ইউনিক হতে হবে। আপনাকে প্রতিটি পদক্ষেপে বুঝিয়ে দিতে হবে, কেন আপনিই সেরা। কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিবো এই প্রশ্নটি মূলত করা হয় একজন কর্মীর নিজের উপর কতটা আত্মবিশ্বাস এবং আস্থা আছে তা যাচাইয়ের জন্য।

কর্মী নিজের অর্জন বা গুণগুলো কতটা ভাল ভাবে জানে এবং প্রকাশ করতে পারে সেই বিষয়ের উপর। আর তাই এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য চাই বাড়তি প্রস্তুতি। আগাম প্রস্তুতি থাকলে চমৎকার ভাবে এই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে পজিটিভ ইমপ্রেশন তৈরী করা সম্ভব।

অনেকেই আছে এই প্রশ্নটির উত্তরে আবার নিজের অভিজ্ঞতা যা একবার বরেছেন তাই বলে যান। একটি ইন্টারভিউ বোর্ডে সময় এত অল্প থাকে যে, একই উত্তর দুবার শোনার সময় থাকে না। আর প্রশ্ন কর্তা যদি তার মন মত উত্তর পেয়ে যান, তবে কেন একই উত্তর শোনার জন্য ২ বার প্রশ্ন করবেন?

এর অর্থ হল তিনি অন্য কিছু শুনতে চাইছেন। নতুনদের মধ্যে অনেকেই বলেন আমি নতুন, আপনি যদি আমাকে কাজটি দেন তবে আমি আপ্রাণ চেষ্টা করবো ভাল করার। এই উত্তরে নিজের দূর্বলতাই ফুটে ওঠে।

নতুনদেরও কোন না কোন গুণ নিশ্চয় আছে। অনেকেই বলেন আমি সৎ কিন্তু একথা প্রমান করার কোন উপায় তাৎক্ষনিক ভাবে আপনার নেই।

অপরদিকে সৎ এবং অসৎ উভয়ই দাবি করবেন যে তারা সৎ। বাস্তব প্রেক্ষাপটে না গেলে, এই তথ্য যাচাইয়ের সুযোগ নেই। তাহলে কি বলতে পারেন। এই প্রশ্নের সুন্দর উত্তর দেওয়ার জন্য আপনাকে সেই কোম্পানি আ প্রতিষ্ঠানের সম্পর্কে জানতে হবে।

আপনি খোঁজ করে দেখুন যে, কোম্পানি এখন কি কাজ করছে এবং সেই কাজের জন্য তাদের কি পরিবর্তন দরকার। আবার এটিও জানতে পারেন যে, কোম্পানি এখন কি কি সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে এবং সেই সমস্যা সমাধানের জন্য আপনর কি গুণ আছে।

তাদের চাহিদার সাথে আপনার যোগ্যতার মিল করানোই হল মূল উদ্দেশ্য। উদাহরণ দিয়ে বলা যায়: ধরুন একটি কোম্পানি ইয়াং লিডারশিপ আনতে চাইছে যার আইটি বিষয়ে দক্ষতা আছে এবং একই সাথে নেতৃত্ব দানেও যিনি পটু।

তবে এক্ষেত্রে আপনার আইটি বিষয়ে দক্ষতা তুলে ধরুন এবং কোথায় কিভাবে আপনি নেতৃত্ব দিয়েছেন সেই বিষয়ে ছোট করে নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরুন।

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব এই প্রশ্নের উত্তরে যে বিষয় গুলি মনে রাখা উচিতঃ

১। প্রাসঙ্গিক হন

যে পদের জন্য আপনি পরীক্ষা দিতে এসেছেন, সেই বিষয়টিই আপনার ফোকাস পয়েন্ট। আর তাই এই প্রশ্নের উত্তর দিতে চাইলে এমন কথা বলুন যেটা আপনার এই পদের জন্য উপযুক্ত।

যেমন, কাস্টমার সার্ভিস সংক্রন্ত জবের জন্য আপনি আপনার মানুষের সাথে সহজে মিশে যাওয়ার ক্ষমতার কথা সুন্দরভাবে বুঝিয়ে বলতে পারেন। আপনি যে পদের জন্য পরীক্ষার্ত্রী আপনাকে সব সময় সেই কেন্দ্রিক চিন্তা ভাবনা করতে হবে।

২। চাহিদা নিরূপন করুন

আপনাকে নিয়োগ দেওয়ার জন্য কোম্পানির নিশ্চয় কোন চাহিদা আছে। আপনার কাজ হল সেই চাহিদার সাথে আপনকে সংযুক্ত করতে পরীক্ষকদের সাহায্য করা এবং আপনি আরো বেশি গুণ সম্পন্ন সেটা বোঝানো।

যেমন আপনি কোম্পানি সম্পর্কে যাচাই করে বুঝলেন যে, কোম্পানির পণ্য প্রান্তিক অঞ্ছলে পৌঁছাচ্ছে কিন্তু মনিটরিং এবং সুপারভিশনের অভাবে আশানুরূপ ফল লাভ করছে না।

আপনি সেক্ষেত্রে উল্লেখ করতে পারেন যে, আপনি দায়িত্ব পেলে নিয়মিত সাইড গুলো ভিজিট করবেন এবং কর্মীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখার মাধ্যমে তাদেরও মোটিভেশন দিতে চেষ্টা করবেন।

এর মাধ্যমে বোঝা যাবে, আপনি কোম্পানির প্রতি আগ্রহীশীল, আপনি নিজের উন্নতির সাথে সাথে কোম্পানিকেও ভাল জায়গায় দেখতে চান এবং কর্মীদের প্রতিও আপনি সহানুভ’তিশীল। আপনার সম্পর্কে ইতিবাচক ধারনা তৈরী হওয়ার জন্য এটি যথেষ্ট।

৩। দক্ষতা তুলে ধরা

নিজের দক্ষতা তুলে ধরার একটি সূর্বন সুযোগ এই প্রশ্নটি। যে পদের প্রার্থী হিসাবে আপনি পরীক্ষার্ত্রী আপনি সেই কাজের জন্য কতটা যোগ্য আপনি সেই বিষয়টি এখানে তুলে ধরতে পারেন।

যেমন আপনি আপনার কাজের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে জানিযেছেন। এই পর্যায়ে আপনি উল্লেখ করতে পারেন আপনি কি কি কোর্স বর্তমানে করছেন। যেমন আইটি সংক্রান্ত কোন কোর্স আপনি করেছেন।

সেই বিষয়টি আপনি উল্লেখ করতে পারেন। এতে আপনার বাড়তি যোগ্যতা এবং কাজের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ পাবে। নেতৃত্বদান সংক্রান্ত কাজ হলে আপনি বাস্তবে যে নেতৃত্বগুলো দিয়েছেন সেগুলো জানতে পারেন এবং সেখান থেকে আপনার শিক্ষনীয় কি ছিল সেটিও তুলে ধরতে পারেন।

৪। আত্নবিশ্বাসী হতে হবে

ইন্টারভিউ বোর্ডে কখনোই আপনার দূর্বলতা প্রকাশ করবেন না। চাকুরিটি আপনার খুব প্রয়োজন তাই আপনি এটি ভাল ভাবে করবেন এটি কোন উত্তর হতে পারে না।

চাকুরি প্রয়োজন সবার আছে। আর তাই এতজন পরীক্ষার্ত্রী সেখানে এসেছে। আপনাকে এই চাকুরিটি অর্জন করতে হবে নিজের যোগ্যতা প্রকাশের মধ্য দিয়েই।

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিব এই প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে আত্মবিশ্বাসের সাথে। আপনি কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন করেন সেই বিষয়টিও এখানে লক্ষ্য করা হয়। সুরাং নিজের উপর আস্থা রাখুন, নিজেকে দূর্বল ভাববেন না। আরো পড়ুন – নিজের সম্পর্কে বলুন

৫। অপ্রয়োজনীয় কথা বলবেন না

এই প্রশ্নের উত্তরে অনেকেই অপ্রয়োজনীয় কথা বলেন এবং সময় নষ্ট করেন। একাধারে সিভিতে উল্লেখ্যিত নিজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন যার কোন প্রয়োজন নেই। প্রশ্নকর্তা আপনার মাঝে কি খুঁজছেন, সেটি ভাবুন। জেনে নিনঃ ইন্টারভিউ প্রশ্ন ও উত্তর- আপনার সব থেকে দূর্বল দিকগুলো কি কি 

৬। উপযুক্ত ব্যাখা দিন

অনেকেই বলে থাকেন আমি পরিশ্রমী, সৎ এবং ধৈর্যশীল। এগুলো নিঃসন্দেহে ভাল গুণ। কিন্তু একজন প্রশ্নকর্তাকে আপনি শুধুমাত্র এই উত্তর দিয়েই সন্তুষ্ট করতে পারবেন না। এই গুণ গুলোর সাথে আপনি উল্লেখ করুন কেন আপনি সৎ পরিশ্রমী এবং ধৈর্য্যশীল।

ভিজিট করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

 

Bangla Preneur YouTube Channel 

৭। সময় নষ্ট করবেন না

দীর্ঘ উত্তর দিয়ে সময় নষ্ট করবেন না। অনেক বেশি সময় নিয়ে আপনার বক্তব্য শোনার ইচ্ছে বক্তাদের নাও থাকতে পারে। তাদের বিরক্তি সৃষ্টি হয়, এমন কাজ করবেন না। স্বল্প সময়ের মধ্যে নিজের বক্তব্য গুছিয়ে তুলে ধরতে পারলে, আপনার প্রতি তাদের আস্থা বেড়ে যাবে। অন্যরা যা পড়ছে-ভাইবা ইন্টারভিউ বা মৌখিক পরীক্ষার প্রস্তুতির A to Z

কেন আমরা আপনাকে নিয়োগ দিবো এই প্রশ্নের উত্তরে কোন ভুল নেই। প্রার্থী যা বলবেন সেটিই সঠিক।  কিন্তু এক্ষেত্রে আপনাকে মনে রাখতে হবে আপনার উত্তর অবশ্যই প্রশ্নকর্তার কাছে আর্কষনীয় হতে হবে এবং অন্যদের থেকে কেন আপনি আলাদা সেই বিষয়টিও তুলে ধরতে হবে।



Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102