শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন

দেশি কবুতরের বাসস্থান নির্মাণ ও পালন পদ্ধতি | Adhunik Krishi Khamar

  • Update Time : সোমবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২২
কবুতর পালন


দেশি কবুতরের বাসস্থান নির্মাণ ও পালন পদ্ধতি ভালোভাবে জেনেই কবুতর পালনে আসা উচিত। আমাদের দেশে অনেকেই শখের বসে আবার কেউ কেউ বাণিজ্যিকভাবে কবুতর পালন করে থাকেন। কবুতর পালন করার মাধ্যমে লাভবান হতে চাইলে বাসস্থান নির্মাণ ও পালন পদ্ধতি সঠিকভাবে জানা দরকার। আসুন আজকে জেনে নিব দেশি কবুতরের বাসস্থান নির্মাণ ও পালন পদ্ধতি সম্পর্কে-

দেশি কবুতরের বাসস্থান নির্মাণ ও পালন পদ্ধতিঃ 


বাসস্থানঃ


দেশি কবুতর খুব সহজে পালন করা যায়। প্রথমে আপনাকে কাক, বিড়াল, বৃষ্টির জল এসব থেকে মুক্ত একটি জায়গা বেছে নিতে হবে। বাড়ির ছাদে বা দেয়ালে কবুতরদের জন্য ঘর স্থাপন করতে হবে। মিস্ত্রি দ্বারা ছোট ছোট কাঠের বাক্স তৈরি করে নিবেন। মনে রাখবেন প্রতি জোড়া কবুতরের জন্য ২ টি ঘর বরাদ্দ রাখবেন। এর কারণ হল, অনেক কবুতর আছে যারা বাচ্চা থাকা অবস্থায় আবার ডিম দেয়, তাই ২ টা ঘর দরকার হয়। প্রতিটা ঘরের মাপ বেশ বড় রাখবেন। সকল ঘরের সামনে প্রশস্ত ল্যান্ডি  স্পট রাখবেন, প্রতি দুটো ঘর পর পর ল্যান্ডিং স্পটের উপরে একটি ব্যারিকেড দিবেন যাতে পাশাপাশি কবুতর জোড়ার মধ্যে ঝগড়া না হয়।

সবচেয়ে ভাল হয় কবুতর দের জন্য একটি আলাদা বড় ঘর করা। ঘরটা হতে পারে ১০০x৮০ বা ১৫০x১০০ ইঞ্চি অনুপাতে। ঘরটি বাড়ির ছাদেও হতে পারে বা বাড়ির সামনেও হতে পারে। ঘরে ঢালাই ছাদ দিলে সবচেয়ে ভাল। এছাড়া সিমেন্টের টিন বা টালি দেয়া যেতে পারে যাতে ঘরের ভেতর সূর্যের তাপ খুব বেশি না হয়। টিনের মধ্যে একটি নীল স্বচ্ছ টিন দিবেন এতে ঘরে আলো আসবে ভাল। ঘরে পর্যাপ্ত বাতাস যেন থাকে সেজন্য ঘরের যেকোনো ২ টা দেয়ালে বড় নেট দিবেন, এতে বাতাস চলাচল করবে। এটা ছাড়াও ঘরের উপরে চার দেয়ালেই ভেন্টিলেটর দিবেন।

আমরা বেশীরভাগ সময় কবুতরের ঘর স্বাস্থ্যসম্মত করতে পারিনা বলে খুব সহজে কবুতর রোগাক্রান্ত হয়। যারা গ্রামে থাকেন, তাঁরা অবশ্যই এই রকম বড় ঘরের মধ্যে কবুতর পালন করবেন, কেননা গ্রামে অনেক অসৎ চাষি জমিতে গম ও সরিষা লাগানোর সময় বীজে বিষ মেশায় যা খেয়ে কবুতর মারা যায়। এই সময় কবুতরদের নিরাপদে রাখার জন্য কবুতরদের ছেড়ে দেয়া যাবেনা।

পালন পদ্ধতিঃ 


বাজার থেকে কবুতর আনার পর প্রথম কাজটা হবে কবুতরকে পরিষ্কার করা। এর জন্য আপনি শুধু পানি দিয়েই স্প্রে করে গোসল করে দিতে পারেন। যদি পারেন তবে পানির সাথে পরিমাণ মতো জীবাণুনাশক যেমন ডেটল বা এ জাতিও কিছু মেশাতে পারেন। কবুতরের চোখে বা কানে যেন পানি না লাগে খেয়াল করবেন। এভাবে গোসল করানোর পর কবুতরগুলোকে ২/৩ দিন আলাদা করে রেখে দিন, এতে জীবাণু মরে যাবে।

তারপর আপনি সেগুলোকে আপনার লফটে আনবেন। যদি আপনার লফটে আগে থেকে কোন কবুতর না থাকে বা এটাই যদি শুরু হয় তবে সরাসরি লফটে রাখবেন। এর কবুতর লফটে নেয়ার আগে আপনার পুরো লফট জীবাণুনাশক দিয়ে আগে থেকে স্প্রে করে প্রস্তুত করে রেখে দিবেন।


আরো পড়ুনঃ মাসের ব্যবধানে ৫০ টাকা বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম


পোলট্রি প্রতিবেদন / আধুনিক কৃষি খামার



Source by [সুন্দরবন]]

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102