শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৩১ অপরাহ্ন

জীবন সংগ্রামে একজন সফল মানুষ, সাইফুল ইসলাম খোকন

  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৯ মার্চ, ২০২২

জনাব মুক্তিযোদ্ধা সাইফুল ইসলাম খোকন, পিতাঃ  মৃত: মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল হক মিয়া, মাতাঃ মৃত; কহিনুর বেগম, ১৯৮৭ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স পাশ, ১৯৮৭ সালে বিআরডিবি অফিস হতে মাত্র ১,০০০/- ঋণ নিয়ে খোকন নিজ পুকুরে ০.৫০ একর জমিতে মাছ চাষ শুরু করেন।

ধাপে ধাপে বর্তমানে ৩.৬৬ একর মৎস খামার আছে, উক্ত মৎস্য খামারে ৮ (আট) জন বেকার যুবক নিয়মিত কাজ করে। বৎসরে গড়ে আনুসাঙ্গিক খরচ বাদে তার খামার থেকে আয় ৩,৫০,০০০/- (তিন লক্ষ পঞ্চাশ হাজার) টাকা । এভাবে ক্রমান্বয়ে তার ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটতে থাকে। বর্তমানে তার দেখাদেখি গ্রামের অনেক বেকার যুবক মৎস চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। এভাবে ঔ গ্রামের দরিদ্রতা অনেকটা কমে এসেছে।

২০০৭ সলে তিনি মাত্র ০৫ (পাঁচ) টি গাভী নিয়ে একটি খামার গড়ে তোলেন যার প্রাথমিক মূলধন ছিল ১,৫০,০০০/- টাকা, বর্তমানে উক্ত খামারে ১২ (বার) টি গাভী আছে, নিজ পরিবারের দুধের চাহিদা মেটান এবং দৈনিক ১০০ কেজি দুধ বিক্রি করেন। উক্ত খামারে ৪ (চার) জন বেকার যুবক নিয়মিত কাজ করেন। দৈনিক গড়ে আনুসাঙ্গিক খরচ বাদে তার খামার থেকে বাৎসরিক আয় ১,৬০,০০০/- টাকা। উল্লেখিত খামার সমূহ উপজেলা প্রানী সম্পদ অফিসার কর্তৃক নিবন্ধিত।

২০১১ সালে তিনি নিজ উদ্দ্যোগে ও খোন্তাকাটা যুব উন্নয়ন সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সহযোগিতায় হাওলাদার-স ও রাইস এন্ড ফ্লাওয়ার মিলস গড়ে তোলেন যেখানে ০৭ (সাত) জন বেকার যুবক নিয়মিত কাজ করেন।

২০১৭ সালে নিজ উদ্দ্যোগে দুইটি মাছ ধরার ট্রলার তৈরি করেন। ট্রলারদুটি নিয়মিত সাগরে ইলিশ মাছ ধরে। বর্তমানে ট্রলারটিতে ৩৬ (ছত্রিশ) জন বেকার যুবক নিয়মিত মাছ ধরে তাদের জীবিকা নির্বাহ করছেন।

২০১৮ সলে তিনি নিজ বাড়ীতে একটি মুরগীর খামার গড়ে তোলেন যার প্রাথমিক মূলধন ছিল ১,৫০,০০০/- টাকা, বর্তমানে উক্ত খামারে ১২০০ মুরগী আছে, নিজ পরিবারের ডিম ও মাংসের চাহিদা মেটান এবং দৈনিক ১০০০ ডিম বিক্রি করেন। উক্ত খামারে ৪ (চার) জন বেকার যুবক নিয়মিত কাজ করেন। দৈনিক গড়ে আনুসাঙ্গিক খরচ বাদে তার খামার থেকে বাৎসরিক আয় ২,৬০,০০০/- টাকা। উল্লেখিত খামার সমূহ উপজেলা প্রানী সম্পদ অফিসার কর্তৃক নিবন্ধিত।

দক্ষিন নলবুনিয়া কৃষক সমবায় সমিতির বর্তমান সভাপতি । কৃষক সমাজের লোকজনকে একত্রিত করে সমবায়ী মনোভাবাপন্ন  করে তোলেন। তিনি শরণখোলা ইউসিসিএ লিঃ এর বর্তমান নির্বাচিত ব্যবস্থাপনা পরিষদের সভাপতি।

তিনি একজন সমাজকর্মী, জনপ্রতিনিধি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল হক কৃষি প্রযুক্তি ইন্স্টিটিউট, মুক্তিযোদ্ধা মফিজুল হক ভোকেশনাল ইন্স্টিটিউট, কহিনুর হক মহিলা কারিগরী এন্ড বিএম কলেজ, আল কারিম হাফিজিয়া কওমী মাদ্রাসা, দারুল কোরআন মুন্সী আঃ কাসেম (রাঃ) মাদ্রাসা, তালতলি, তালতলি কমিউনিটি ক্লিনিক,তালতলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শরণখোলা, বাগেরহাট এর দাতা ও প্রতিষ্ঠাতা।

প্রতিষ্ঠাতা সদস্য আইডিয়াল ইনষ্টিটিউট, মাতৃভাষা ডিগ্রী কলেজ, শরণখোলা, বাগেরহাট। উপজেলা পাবলিক লাইব্রেরী শরণখোলার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বর্তমান সহ সভাপতি। বর্তমানে রায়েন্দা রাজৈর ফাজিল মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির ও রায়েন্দা মৎস্য আড়তের সভাপতি। বাংলাদেশ ফিসিং ট্রলার মালিক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি। বর্তমান স’মিল মালিক ও শ্রমিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি। শরণখোলা হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়ন এর প্রতিষ্ঠাতা বর্তমান পর্যন্ত। মুক্তিযোদ্ধা সংসদ শরণখোলার নির্বাচিত কার্যকারী সদস্য।

 

তিনি একজন সংস্কৃতি প্রিয় ব্যক্তিত্ব। আন্ত: ফুটবল ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় জেলা, উপজেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে তিনি একাধিকবার চ্যাম্পিয়ার পুরষ্কার প্রাপ্ত হয়েছেন। তিনি বর্তমান সহ ৫ বার শরণখোলা উপজেলার ক্রীড়া কমিটির সাধারণ সম্পাদক। তাছাড়া অন্যান্য খেলাধুলায় ও সংস্কৃতিতে তার ব্যাপক অভিঙ্গতা রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Recent Posts

© 2022 sundarbon24.com|| All rights reserved.
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102