মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪২ অপরাহ্ন
শিরোনাম
ট্রাকের পেছনে গ্রীণলাইনের ধাক্কায় চালক নিহত, আহত ৩ শরণখোলায় মৃতঃ মুক্তিযোদ্ধাদের ডিজিটাল সনদ পরিবারের কাছে হস্তান্তর শরণখোলায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ! সিরিজ দুর্নীতির অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গে বিপাকে মমতা কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি DC Office Job 2022 ইনজুরিতে জর্জরিত লিভারপুল – স্পোর্টস প্রতিদিন তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল সংযোগে আরও পরিশোধ হল ১৫ মিলিয়ন ডলার – টেক শহর ভারতীয় ক্রিকেটার চাহালের স্ত্রী ধনশ্রী ভার্মার নাচ ভক্তদের মুগ্ধ করেছে সারা খুলনা অঞ্চলের সব খবরা খবর বেনাপোল ও শার্শা থানায় খোলা আকাশের নিচে নষ্ট হচ্ছে কোটি টাকার গাড়ি

ক্যামেরা অন করে ত্রাণ দিলে কে বা কারা যেন ক্যামেরা ভেঙে দিচ্ছে

  • আপডেট সময় বুধবার, ২২ জুন, ২০২২
ক্যামেরা অন করে ত্রাণ দিলে কে বা কারা যেন ক্যামেরা ভেঙে দিচ্ছে

সিলেট, সুনামগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে বন্যার্তদের ত্রাণ দিচ্ছে মানবিকবোধ সম্পন্ন মানুষেরা। কিন্তু ত্রাণকার্যে দেখা দিয়েছে রহস্যময় এক জটিলতা। বিভিন্ন জায়গা থেকে খবর পাওয়া যাচ্ছে, ক্যামেরা অন করে ত্রাণ দিলে কে বা কারা যেন ক্যামেরা ভেঙে দিচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানতে চাইলে ত্রাণসম্রাট খলিল eআরকিকে বলেন, ‘আমরা ৩০জন ১৫ প্যাকেট ত্রাণ আর ৩০টা ক্যামেরা নিয়ে আসছিলাম। দুইজনকে দেয়ার পরেই কে যেন আমাদের ক্যামেরাগুলো ভেঙে গুঁড়োগুঁড়ো করে দেয়। এখন ক্যামেরা ছাড়া আমরা কীভাবে ত্রাণ দেবো? এটা কি আদৌ সম্ভব?’

ত্রাণ ফিরিয়ে নেয়ার পরিকল্পনাও আছে তাদের। খলিলের বন্ধু জলিল বলেন, ‘ক্যামেরাতে আমাদের ত্রাণ দেয়ার কিউট কিউট ছবি ছিলো। কিছু ছবি তো দেখলেই মানুষ কান্না করে দিতো। কী মায়া তাদের চোখে আহা! অসহায় মানুষগুলোর চোখগুলো ছলছল করছিলো। আমার ৪২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় চোখের মণি পর্যন্ত দেখা যাচ্ছিলো। এই ছবি ফেসবুক আপ করলে ভাইরাল হয়ে যেতো।’

খবরে জানা যায় শুধু মোবাইল ক্যামেরা না, ডিএসএলআর, গ্রোপ্রো, অ্যালেক্সা, সনি এফএস সেভেন, রেডসহ আরও অনেক দামি দামি ক্যামেরা ভেঙে ফেলা হয়েছে। এমনকি গায়ে হাত তোলা হয়েছে সিনেমাটোগ্রাফারকে।

এভাবে ক্যামেরা ভাঙার ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছে শো অফ ত্রাণ কমিটির সভাপতি। তিনি বলেন, ‘ক্যামেরা আমাদের ত্রাণ দেয়ার এনার্জি, অথচ সেই ক্যামেরাটা তারা ভেঙে দিচ্ছে। ওরা কি কেউ অসহায় মানুষদের ভালো চায় না? এখনো আমাদের কাছে বিশজনের ত্রাণ রয়েছে। ত্রাণ দিতে দেশের নানা অঞ্চল থেকে বন্ধু আর আত্মীয়-স্বজনরা এসেছে। এতোগুলা মানুষের এখন কী হবে?’

ক্যামেরা ভেঙে পড়ায় আর কখনো ত্রাণ দেবেন না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জনৈক ত্রাণবাজ। তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমার দুইটা ক্যামেরা ভেঙেছে। তাই আমাদের ত্রাণ দেয়া আপাতত বন্ধ। ঢাকা থেকে সিনেমাটোগ্রাফার আর ক্যামেরা রওনা দিয়েছে। এলেই আমরা আবার ত্রাণকার্য শুরু করতে পারবো।‘




Source by [সুন্দরবন]]

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ এই ক্যাটাগরি

Recent Posts

সুন্দরবন টোয়েন্টিফোর ডট কম, সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত - ২০১৯-২০২২
Designer:Shimul Hossain
themesba-lates1749691102